চেকবই বা এটিএম ছাড়াই স্টেট ব্যাঙ্কের একাউন্ট থেকে উধাও ১ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা

লাল্টু : চেকবই অথবা এটিএম কোনো কিছুই ব্যাঙ্ক থেকে না নেওয়া সত্ত্বেও আশ্চর্যজনকভাবে এক ব্যক্তির স্টেট ব্যাংকের সেভিংস একাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গেল লক্ষাধিক টাকা। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের দুবরাজপুর থানার অন্তর্গত হেতমপুর গ্রামের এক বাসিন্দার।

প্রতারিত ব্যক্তি ধ্রুবনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় পেশায় একজন দিনমজুর। তিনি দীর্ঘদিন ধরেই বীরভূমের দুবরাজপুর থানার অন্তর্গত হেতমপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি গলসি থানার অন্তর্গত নিজের ভিটে বাড়ির বেশকিছু জমিজমা বিক্রি করে দু লক্ষ টাকার স্টেট ব্যাংকের সেভিংসে রেখেছিলেন। কিন্তু হঠাৎ ব্যালান্স দেখার জন্য বই আপডেট করতেই দেখেন ২ লক্ষ টাকা থেকে প্রায় ১ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা উধাও হয়ে গিয়েছে। এমন ঘটনা দেখেই তিনি হতবাক হয়ে যান।

ধ্রুবনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেন, তিনি সেভিংস একাউন্টের সাথে কোনো চেকবই বা এটিএম নেননি। যাতে করেও কেউ প্রতারনা করবে। ঘটনার পর তিনি ব্যাংকের দ্বারস্থ হলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ প্রথমে থানায় জানাতে বলে।

ঘটনার পর দুবরাজপুর স্টেট ব্যাংক শাখার চিপ ম্যানেজার নিশীথ দত্তের জানান, যে টাকাটা তার অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে গিয়েছে, সেটি ইউপিআই ট্রানজাকশনের মাধ্যমে হয়েছে। ইউপিআই ট্রানজাকশন করার জন্য কোন রকম চেকবই অথবা এটিএম কার্ডের প্রয়োজন হয় না। থানার অভিযোগপত্র এবং আমাদের কাছে জমা পড়া আবেদনপত্র অনুযায়ী আমরা চেষ্টা করবো টাকাটা যেন ফেরত আসে।

এতদিন পর্যন্ত শোনা যেত, এটিএম পিন হাতিয়ে অথবা ওটিপি নানান ছলনার মাধ্যমে হাতিয়ে একাউন্ট থেকে টাকা উধাওয়ের ঘটনা। আর এবার এসব সবকিছুকে ছাড়িয়ে ঘটে গেল নতুন এই ঘটনা। সাধারণ মানুষের সঞ্চিত অর্থ যদি ব্যাঙ্কই নিরাপত্তা না দিতে পারে, তাহলে তারা যাবেন কোথায়! উঠছে প্রশ্ন।