২৫ শে বৈশাখ, বিশ্ববরেণ্য কবি রবি ঠাকুরের জন্ম জয়ন্তীতে শ্রদ্ধা নিবেদন

অমরনাথ দত্ত : বিশ্ববরেণ্য কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯ তম জন্ম জয়ন্তী। প্রতি বছরের মত এবারও তাই বিশ্বভারতীতে এই দিনটি শ্রদ্ধার সাথে পালন করা হচ্ছে।

ভোরবেলায় গৌরপ্রাঙ্গনে বৈতালিকের মধ্য দিয়ে শুরু হয় রবীন্দ্র জন্ম জয়ন্তীর অনুষ্ঠান। উত্তরায়ণে হয় কবিকণ্ঠ। প্রথা অনুযায়ী সকাল ৭টায় উপাসনা গৃহে হয় কবিকন্ঠ। বিশ্বভারতীর উপাচার্য শ্রী বিদ্যুৎ চক্রবর্তী, ঠাকুর পরিবারের সদস্য তথা প্রবীণ আশ্রমিক সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, অধ্যাপক-অধ্যাপিকারা ও আশ্রমিকদের উপস্থিতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন রবি ঠাকুরের প্রতি। বৈদিক মন্ত্রপাঠ, ব্রহ্ম উপাসনা, রবীন্দ্রসঙ্গীতের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু সকাল থেকেই।

বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে, শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন পালন হয় ১৯৩৬ সালে। আগে বর্ষবরণ ও গুরুদেবের জন্মদিন এক সঙ্গে পালিত হত। কারণ প্রচণ্ড দাবদাহ ও জল কষ্টের জন্য বিশ্বভারতীতে ছুটি পড়ে যেত, ২৫ শে বৈশাখ ছুটি থাকত। এখন অবশ্য সেই পরিস্থিতি নেই। তাই ২৫ বৈশাখে আলাদাভাবে গুরুদেবের জন্মদিন পালিত হয়।

বিশ্বভারতীতে প্রথম নববর্ষ পালিত হয় ১৯৩৬ সালের ১৫ এপ্রিল। বাংলায় ১৩৪৩ সাল। ১৯৪১ সালের ১৪ এপ্রিল, তথা বাংলা ১৩৪৮ সালের ১ বৈশাখ বর্ষবরণের দিন কবির জীবদ্দশায় শেষ জন্মদিন পালন হয়।