ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে বড় ঘোষণা কেন্দ্রের, সড়ক পরিবহন আইনে বড়সড় বদল

সমাজের আর্থিক অনগ্রসর শ্রেণির সুবিধার্থেই বড় বদল আনছে কেন্দ্র সরকার, এমনই বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে জাতীয় সড়ক এবং পরিবহন মন্ত্রক। কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে যান চালকদের ক্ষেত্রে উঠে যাচ্ছে ন্যূন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতার মাপকাঠি৷ সড়ক পরিবহন আইনে বদল এনে পরিবহন যান চালকদের জন্য আর বাধ্যতামূলক রইল না অষ্টম শ্রেণি পাশ।

সেন্ট্রাল মোটর ভেহিকলস রুলসের (১৯৮৯) ৮ নম্বর ধারা অনুযায়ী, বর্তমানে পরিবাহী গাড়ির চালানোর লাইসেন্স পেতে আবেদনকারীর ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা ক্লাস এইট পাস থাকতে হবে।

মঙ্গলবার সড়ক পরিবহণ মন্ত্রকের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, যাতে গ্রামের দরিদ্র মানুষও বেশি করে চাকরি পান, সে কারণে ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়ার জন্য ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা কমানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে পরিবহণ ক্ষেত্রে প্রায় লক্ষাধিক চালক দরকার। গ্রামীণ এলাকার প্রচুর বেকার যুবক দক্ষ হওয়া সত্ত্বেও শুধুমাত্র শিক্ষাগত যোগ্যতা কম থাকার জন্যই লাইসেন্স পাচ্ছেন না। সেই কারণে চাকরিতে আবেদন করার সুযোগও মিলছে না। এই সমস্যা সমাধানে শীঘ্রই ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা কমানোর ব্যাপারে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে বলেও সড়ক পরিবহণ মন্ত্রক সূত্রে জানানো হয়েছে।

মন্ত্রকের দাবি, এর ফলে বহু বেকার যুবক-যুবতীর কাছে কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়বে এবং একই সঙ্গে দেশের পরিবহণ ও লজিস্টিক্স শিল্পে প্রায় ২২ লক্ষ ড্রাইভার ঘাটতির সমস্যাও মিটবে। এই বিপুল সংখ্যক ড্রাইভার ঘাটতির কারণে দেশের পরিবহণ ও লজিস্টিক্স ক্ষেত্রের বৃদ্ধি থমকে রয়েছে।

পাশাপাশি, বর্তমান আইন সংশোধনের ব্যাপারেও মন্ত্রক দ্রুত উদ্যোগ নেবে বলে এদিন জানানো হয়েছে। তবে, শিক্ষাগত যোগ্যতা কমানো হলেও ড্রাইভিং লাইসেন্স দেওয়ার আগে গাড়ি চালানোর উপযুক্ত দক্ষতা রয়েছে কি না, তা নিয়ে কোনোরকম আপোস করা হবে না। এই কারণে যে সকল কেন্দ্রে চালক হওয়ার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়, সেগুলিকে কড়া নির্দেশ পাঠানো হয়েছে, যাতে ট্রেনিংয়ে যেন কোনওরকম গাফিলতি দেওয়া না হয়।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রক ইতিমধ্যেই সেন্ট্রাল মোটর ভেহিকলস রুলস সংশোধন করার প্রক্রিয়া শুরু করেছে এবং ওই সংক্রান্ত খসড়া বিজ্ঞপ্তি শীঘ্রই জারি করা হবে বলে বিবৃতিটিতে জানানো হয়েছে। মন্ত্রকের দাবি, ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন না থাকলে বিশেষ করে গ্রামীণ এলাকায় প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাহীন বহু বেকার মানুষের কাছে কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে।

সড়ক পরিবহণ মন্ত্রকের সাম্প্রতিক এক মিটিংয়ে হরিয়ানা সরকার প্রথম এই শর্ত তুলে দেওয়ার আর্জি জানায়। অর্থনৈতিকভাবে অনগ্রসর হরিয়ানার মেওয়াট অঞ্চলের ড্রাইভারদের লাইসেন্স পেতে ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতার শর্ত থেকে ছাড় দেওয়ার আর্জি জানায় হরিয়ানা সরকার। যুক্তি দেখানো হয়, গাড়ি চালাতে হলে শিক্ষাগত যোগ্যতার থেকেও বেশি প্রয়োজন দক্ষতার। কিন্তু, প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা না থাকায় মেওয়াটের অধিবাসীরা ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে সমস্যায় পড়ছেন।