‘১৮ বছর ধরে খালি পায়ে, বিজেপি না এলে পরবেনও না জুতো’

নিজস্ব প্রতিবেদন : ১৮ বছর আগে এমন শপথ করেছিলেন এক বিজেপি কর্মী। আর তারপর থেকেই তিনি খালি পায়েই যাতায়াত করেন। কড়া রোদ, বৃষ্টি, জল, কাদা সবকিছুকে উপেক্ষা করে এই ভাবেই চলছেন ১৮ বছর ধরে। এমনকি তার শপথ বিজেপি সরকার এলে তবেই পায়ে জুতো দিবেন। তার আগে নয়।

এমন আজব শপথ করা বিজেপি কর্মী হলেন পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামের খাঁড়াইত পাড়ার নীলমণি দানা। দিন কয়েক ধরেই তার তেমন শপথের কথা চাউর হয়েছে চারদিকে। আর তারপর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন এলাকার মানুষদের মধ্যে কৌতূহল বাড়ছে তাকে দেখার জন্য। তিনি কোনো হেভিওয়েট নেতা অথবা বড় সেলিব্রেটি না হয়েও বর্তমান রাজ্য রাজনীতিতে আলাদা জায়গা করে নিয়েছেন।

দু’দশকের বেশি সময় ধরে এই বিজেপি কর্মী ধুপকাঠির ব্যবসা করেন। পাড়ায় পাড়ায় খালি পায়ে ঘুরে ঘুরে তিনি ধূপকাঠি বিক্রি করেন। আর তাকে খালি পায়ে দেখতে পেয়ে অনেকেই খালি পায়ে থাকার কারণ জিজ্ঞাসা করলেও সেই প্রশ্নের উত্তর মেলেনি। এমন কি দীর্ঘদিনের বিবাহিত নীলমণি দানার স্ত্রীও বিষয়টি নিয়ে ওয়াকিবহাল ছিলেন না। তিনি শুধু জানিয়েছেন, “বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই উনি জুতো পরা ছেড়ে দিয়েছিলেন। তারপর থেকেই খালি পায়ে সব জায়গায় যাতায়াত। বর্তমানে তা অভ্যাসে পরিণত হয়ে গেছে।”

আরও পড়ুন :

তবে একাধিক প্রশ্নের মুখে পরে অবশেষে নীলমণি দানা তার খালি পায়ে থাকার কারণ নিয়ে মুখ খুলতে বাধ্য হন। সম্প্রতি ছেলেমেয়েদের একাধিক প্রশ্ন এবং দলের সহকর্মীদের নাছোড়বান্দাতে নিজের শপথের পর্দা ফাঁস করেন। তিনি জানান, “আমি বারবার চেয়েছি যাতে আমার দল রাজ্যে সরকারে আসে। যতদিন সেই স্বপ্ন পূরণ না হবে ততদিন জুতো পরবো না ঠিক করেছিলাম। এবার মনে হচ্ছে আমার সেই স্বপ্ন পূরণের সম্ভাবনা জাগিয়ে তুলেছে রাজ্যের মানুষ। তাই আমিও স্বপ্ন দেখছি।”