বল ভেবে খেলতে গিয়ে বোমা ফেটে বীরভূমে মৃত্যু নাবালকের

হিমাদ্রি মন্ডল : করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে রবিবার থেকে রাজ্যজুড়ে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে আলাদা করে কড়া বিধি-নিষেধ জারি করা হয়েছে। তবে এই বিধি-নিষেধকে অবজ্ঞা করে বিজয় মিছিলে মত্ত হতে দেখা গেল পাঁড়ুই থানার অন্তর্গত অবিনাশপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ভালাইপুর গ্রামের শাসকদল তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের। তবে এরই পাশাপাশি আরও একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে গেল এরই পাশের গ্রাম ক্ষতি পুরে।

জানা গিয়েছে, ভালাইপুরের তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের মিছিল চলে যাওয়ার পর ক্ষতি পুর নামের ওই গ্রাম ঢোকার আগে যে একটি ক্যানেল রয়েছে সেখানে একটি কৌটো পড়ে থাকতে দেখা যায়। সেই কৌটোটি কুড়িয়ে এক নাবালক খেলার সময় তা ফেটে যায় এবং ওই নাবালকের মৃত্যু হয়। পরিবারের অভিযোগ, ওই কৌটোতে বোমা রাখা ছিল। আর সেই বোমা ফেটে মৃত্যু হয়েছে ওই নাবালকের।

মৃত ওই নাবালকের নাম শেখ নাসিরুদ্দিন। তার বয়স ১১ বছর। মৃত নাবালকের দাদু শেখ জামির জানিয়েছেন, “মিছিলের পর পড়ে থাকা একটি কৌটোর মধ্যে বোম ছিল। সেটা নাড়তে গিয়েই ফেটে যায়। মাথায় আঘাত লাগে এবং বাচ্চা মারা যায়।” ঘটনার পর মৃত নাবালকের দেহ সিউড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে আনা হয় ময়না তদন্তের জন্য। তবে পরিবারের লোকজন কোন রকম অভিযোগ করবেন না বলেই জানিয়েছেন। তাদের দাবি, ‘কাউকে দেখি নাই। সুতরাং কার বিরুদ্ধে অভিযোগ করবো?’

আরও পড়ুন :

প্রসঙ্গত, বল ভেবে বোমা নিয়ে খেলতে গিয়ে এর আগেও শিশুর মৃত্যুর ঘটনা চোখে পড়েছে পূর্ব বর্ধমানে। ভোটের সময় যে ঘটনার পর নড়েচড়ে বসতে দেখা গিয়েছিল পুলিশ প্রশাসনকে। বীরভূম সহ বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে অজস্র বোমা উদ্ধার করা হয়েছিল। আর এবার ভোট মিটে যাওয়ার পরেও এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটলো, যেখানে আবারও খেলনা ভেবে খেলতে গিয়ে বোমা ফেটে মৃত্যু হল নাবালকের।