ভোটের আগেই মা’কে হারিয়ে শোকাহত অনুব্রত মণ্ডল

অমরনাথ দত্ত : লোকসভা ভোটের আগে ব্যক্তিগত জীবনে বড় ধাক্কা অনুব্রত মণ্ডলের। আর মাত্র কয়েকদিন বীরভূমের দুটি লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচন। ঠিক তার আগেই আজ মা’কে হারালেন তিনি। যদিও এই ঘটনার সাথে তার রাজনৈতিক কোনো সম্পর্ক নেই।

শনিবার সকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন অনুব্রত মণ্ডলের মা পুষ্পরানী মন্ডল। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন তিনি। বাড়িতেই তার চিকিৎসা চলছিল। গত ৭-৮ দিন ধরে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। অবশেষে আজ সকালে তিনি ইহলোক ত্যাগ করে পরলোকে গমন করেন।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, স্বর্গীয় পুষ্পরানী মন্ডলের তিন ছেলে ও তিন মেয়ে রয়েছে। জাতির মধ্যে এক সন্তান অনুব্রত মণ্ডল। পুষ্পরানী মন্ডলের ইহলোক ত্যাগ করার সাথে সাথে সকলেই আজ মাতৃহারা।

অনুব্রত মণ্ডল ২০১৩ সালের পঞ্চায়েত ভোটের পর থেকে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসাবে নিজের জায়গা করতে শুরু করেন। অনুব্রত জীবনের সমস্ত রাজনৈতিক ঘটনার সাক্ষী ছিলেন মা পুষ্পরানি মন্ডল। এমনকি কেষ্টও প্রতিদিন সকাল বেলায় ঘুম থেকে উঠে তার মায়ের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করে যে কোন কাজে বের হতেন। আর আজ সেই মা চলে যাওয়ায় চরম শোকাহত অনুব্রত।

সকালেই বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে একের পর এক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব তার বাড়িতে এসে দেখা করে যান। ঘুম থেকে উঠেই ছুটে চলে আসেন মৎস্য মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহা থেকে অন্যান্যরা।