মমতা সরকারের ডিম ভাতের পাল্টা বিজেপির মধ্যাহ্নভোজন, রইলো মেনু

নিজস্ব প্রতিবেদন : বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের সাধারণ মানুষকে পেট ভরে খাওয়ানোর জন্য মাত্র ৫ টাকায় ডিম ভাতের পরিকল্পনা নিয়ে শুরু করেছেন ‘মা কিচেন’। ইতিমধ্যেই পরীক্ষামূলকভাবে এই প্রকল্প কলকাতা ছাড়াও রাজ্যের বেশকিছু পৌরসভায় গ্রহণ করা হয়েছে। তবে এরই পাল্টা এবার আসরে নামতে দেখা গেল বিজেপিকে।

সোমবার পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায় বিজেপির তরফ থেকে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করা হয় সাধারণ মানুষদের জন্য। যেখানে প্রায় ৭০০ জনের মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করা হয়। মাটিতে বসে পেট পুরে মধ্যাহ্নভোজনের এই আয়োজনে এদিন বিজেপির নেতা কর্মীদেরও পেট পুরে খেতে দেখা যায়। আর এই মধ্যাহ্নভোজনের বিষয়ে বিজেপির তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, আগামী দিনে কাঁথির বিভিন্ন এলাকায় এমন আয়োজন করা হবে।

কিন্তু প্রশ্ন হলো তৃণমূল সরকার সাধারণ মানুষদের জন্য ৫ টাকায় ডিম ভাতের আয়োজন করেছে। সেক্ষেত্রে পাল্টা হিসেবে এবার বিজেপির এই মধ্যাহ্নভোজনের মেনুতে কি রয়েছে আর এর জন্য সাধারণ মানুষকে কত খরচ করতে হবে? প্রথমেই বলে রাখা ভাল এই খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন আপাতত এগরায় করেছে বিজেপি এবং আগামী দিনে কাঁথির বিভিন্ন এলাকায় করবে। কিন্তু রাজ্যের অন্যান্য জায়গায় একই রকম আয়োজন তারা চালাবেন বলেও ইঙ্গিত মিলেছে।

বিজেপির দ্বারা আয়োজিত এই মধ্যাহ্নভোজন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে বলে জানিয়েছেন পূর্ব মেদিনীপুরের অন্যতম বিজেপি নেতা কনিষ্ক পান্ডা। মধ্যাহ্নভোজনের মেনুতে ভাত ছাড়াও ছিল আলু ভাজা, ডাল, মাছের ঝোল, এমনকি শেষ পাতে চাটনি। অর্থাৎ তৃণমূলের ডিম ভাতের পাল্টা এবার বিজেপির মাছ ভাত।

আরও পড়ুন :

বিজেপি নেতা কনিষ্ক পান্ডা জানিয়েছেন, “বাঙালি সংস্কৃতিকে তুলে ধরতে মাছে ভাতে বাঙালি অনুষ্ঠানের আয়োজন। আগামী দিনে বিভিন্ন এলাকায় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। সকালে যেমন চায় পে চর্চা ঠিক তেমনি দুপুরে খাওয়া-দাওয়ার ফাঁকে এমন চর্চা চলবে।”