CNG Kit: ১০৪ টাকার পেট্রোল নিয়ে চিন্তা নেই! এবার এই ছোট্ট কিট লাগালেই পুরাতন মোটরবাইক হয়ে যাবে সিএনজির

Antara Nag

Published on:

By installing this small kit, the old motorbike will become CNG: দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধির বাজারে গাড়ি ব্যবহার করা অতন্ত্য খরচ সাপেক্ষ্য বিষয়। পেট্রল, ডিজেলের দাম প্রতিনিয়ত যে হারে বেড়ে চলেছে তাতে গাড়ি ভাড়া দিতে গিয়েও সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবার দিন চলে এসেছে। বাজারে আসতে চলেছে সিএনজি বাইক। সিএনজি গাড়ি কিছুদিন আগেই বাজারে এসেছে। এইবার বিশ্বের প্রথম সিএনজি চালিত বাইক বাজারে আসতে চলেছে ৫ ই জুলাই ২০২৪ এ। বাইকের সিটের নীচে সিএনজির সিলিন্ডার বসানো থাকবে। বাজাজ অটোর পক্ষ্য থেকে বাজারে নিয়ে আসা হচ্ছে সিএনজি বাইকগুলি। এখনো পর্যন্ত সংস্থার সবথেকে বড় এবং আকর্ষণীয় প্রোডাক্ট হয়ে উঠতে চলেছে এই গাড়িগুলি। শুধু তাই নয়, বাজারে আসতে চলেছে সিএনজি কিট (CNG Kit)। এর সাহায্যে সাধারণ বাইকেও পাওয়া যাবে সিএনজির সুবিধা।

খরচ বাঁচাতে কি আবার নতুন করে সিএনজি গাড়ি কিনতে হবে ? তার কোনো প্রয়োজন নেই। আপনি আপনার পুরোনো পেট্রল চালিত গাড়িগুলিতেও পেতে পারেন সিএনজির পরিষেবা। শুধু পুরোনো গাড়ি গুলোতে নতুন করে যুক্ত করে নিতে হবে সিএনজি কিট (CNG Kit)। তথ্য সূত্রে জানা গেছে, বাজাজ অটোর নতুন সিএনজি গাড়িগুলির বাজারে বিক্রয় মূল্য শুরু হতে পারে ৮০ হাজার টাকা থেকে। অর্থাৎ নতুন সিএনজি গাড়ি কিনতে চাইলে কমপক্ষে ১ লক্ষ্য টাকা বাজেট রাখতে হবে ক্রেতাকে। পেট্রল চালিত গাড়ির তুলনায় সিএনজির গাড়ির মাইলেজ অনেক বেশি।

কিন্তু হটাৎ করে ১ লক্ষ্য টাকা খরচ করে নতুন গাড়ি কেনা সবার পক্ষ্যে সম্ভব না। তাহেল উপায়?আপনি চাইলে আপনার পুরোনো গাড়িতেও পেতে পারেন সিএনজির সুবিধা। বাজারে সিএনজি গাড়ি আসার পাশাপাশি এসেছে সিএনজি কিট (CNG Kit)। বেশ কয়েকটি গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা বাজারে নিয়ে এসেছে সিএনজি কিট। এই কিটগুলি গাড়িতে লাগিয়ে নিলেই পুরোনো গাড়িতেই সিএনজি গাড়ির সুযোগ সুবিধা পাওয়া যাবে। ১ কেজি সিএনজি গ্যাস ১২০ কিমি প্রতি ঘন্টার মাইলেজ দিতে সক্ষম। পেট্রোল চালিত বাইকে মাইলেজ পাওয়া যায় ঘন্টায় ৭০ থেকে ১০০ কিমির মতন। এই কিটগুলি তুলনামূলক সস্তা।

আরও পড়ুন 👉 Bajaj CNG Bike: ১০৪ টাকার পেট্রোলের দিন শেষ! এবার এই দিন বাজাজ আনছে CNG বাইক

শুধু মাইলেজ নয়, সিএনজি গ্যাস আপনার যাতায়াত খরচ কমিয়ে দিতে পারে। যেখানে ১ লিটার পেট্রোলের দাম ১০৪ টাকা। সেখানে ১ কেজি সিএনজি গ্যাসের দাম মাত্র ৭৫ থেকে ৯০ টাকার মধ্যে। অর্থাৎ পেট্রল চালিত গাড়ির তুলনায় সিএনজি গাড়ি ব্যবহারে সঞ্চয় হতে পারে ১৪ থেকে ২৯ টাকা পর্যন্ত। তাই পেট্রোলের খরচ বাঁচাতে সিএনজি গাড়ি বাজারে আসার আগে থেকেই অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে গাড়িগুলি। কম খরচে পাওয়া যাবে বেশি মাইলেজ। নতুন সিএনজি গাড়িগুলির একাধিক আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট গাড়িগুলিকে জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে দিয়েছে বাজারে আসার আগেই। সিএনজি কিটও একই পরিষেবা দেবে। তবে ইনবিল্ড সিএনজি কিট (CNG Kit) যুক্ত গাড়ি এখনো পর্যন্ত বাজারে আসেনি। তাই সিএনজি কিট ব্যবহার করতে চাইলে বাজার থেকে আলাদা ভাবে কিনে সাধারণ বাইকের সাথে যুক্ত করে নিতে হবে।

মাত্র ১৫ থেকে ৩০ হাজার খরচ করলেই আপনার পুরোনো বাইকেটিকে সিএনজি বাইকৈ পরিণত করে নিতে পারবেন সিএনজি কিটের সাহায্যে। সিএনজি কিটটিতে ১ টি সুইচ থাকে। সেই সুইচটির সাহায্যে পেট্রোল থেকে সিএনজি অথবা সিএনজি থেকে পেট্রোল মোড পরিবর্তন করা যায় খুব সহজেই। তবে সংস্থা ভিত্তিক সিএনজি কিটের দাম আলাদা। কোন গাড়িতে কিটটি ইনস্টল করছেন তার উপরেও নির্ভর করবে কিটটির দাম। এখানে ১ টি সমস্যা রয়েছে। স্কুটি বা স্কুটার ছাড়া অন্য কোনো গাড়িতে এই কিট ব্যবহার করা যায় না। কারণ, শুধুমাত্র স্কুটি বা স্কুটারেই সিএনজি সিলিন্ডার বসানোর জায়গা থাকে। অন্য বাইকগুলিতে সেই জায়গা থাকে না। তাহলে আর দেরি না করে নিজের স্কুটি কিংবা স্কুটারে যুক্ত করে নিন সিএনজি কিট (CNG Kit)। আর উপভোগ করুন সিএনজি গাড়ির সুবিধা।