লকডাউন কি আসন্ন! মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন : দেশে উত্তরোত্তর বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বর্তমানে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বের প্রতিটি দেশকে হার মানিয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার পাশাপাশি বাড়ছে প্রাণহানির সংখ্যা। আর এই পরিস্থিতিতে পরিযায়ী শ্রমিক থেকে অন্যান্যদের মধ্যে ফের একবার লকডাউন নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে। বহু পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে ইতিমধ্যেই ভিন রাজ্য ছেড়ে নিজের রাজ্যে ফিরে আসার তাড়াহুড়ো শুরু হয়েছে। আর এই নিয়ে এবার মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

দেশে ঝড়ের গতিতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য সাধারণ মানুষ এবং বিশেষজ্ঞদের একাংশ ভোটকে দায়ী করছেন। তবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সংক্রমণ বৃদ্ধির সাথে ভোটকে মিশিয়ে দেওয়ার পক্ষপাতী নন। এর পরিপেক্ষিতে অমিত শাহ একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, “দেখুন মহারাষ্ট্রে এখন ভোট নেই কিন্তু সেখানে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ হাজারের বেশি। আর এখানে অর্থাৎ বাংলায় ভোট থাকলেও দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা চার হাজারের বেশি। তবে আমি মহারাষ্ট্র এবং বাংলা দুই রাজ্যের জন্যই সমান উদ্বিগ্ন। ভোটের সাথে সংক্রমণ বৃদ্ধিকে মিশিয়ে দেওয়া উচিত নয়। কারণ যে সকল রাজ্যগুলিতে ভোট হচ্ছে না সেই রাজ্যগুলিতে সংক্রমণ আরও বেশি। তাহলে আপনি কি বলবেন?”

দেশের সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলেও অমিত শাহ আশ্বস্ত করেন, “সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলেও দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা মজবুত এবং করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করার পরিকাঠামো তৈরি করে ফেলেছে। দেশের বিজ্ঞানীরা দিনরাত কাজ করে চলেছেন।” আর এর সাথে সাথেই প্রশ্ন উঠে লকডাউন নিয়ে।

আরও পড়ুন :

আর এই লকডাউন নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় অমিত শাহ জানান, “এখনই তাড়াহুড়ো করে লকডাউনের কথা ভাবছে না কেন্দ্র। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেবেন। প্রশাসনের তরফে সমস্ত সংশ্লিষ্ট দপ্তরের সাথে কথা বলা হচ্ছে। করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময় লকডাউন করার মূলে ছিল চিকিৎসা ব্যবস্থাকে প্রস্তুত করা। তা বেশ কিছুটা তৈরি হয়ে গেছে। এছাড়াও বর্তমানে আমাদের হাতে টিকা রয়েছে। তাই আপাতত চিন্তার কোন কারণ নেই।”