করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে কোন পথে হাঁটছে রাজ্য, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন : যে হারে প্রতিদিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে সত্যিই নাজেহাল অবস্থা রাজ্যের। তবে এই কঠিন পরিস্থিতিতেও রাজ্য সরকার যথেষ্ট গুরুত্ব সহকারে করোনার দ্বিতীয় ঢেউকে ঠেকানোর পথে হাঁটছে এমনটাই জানালেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি তিনি জানান এই মুহূর্তে ২০০০ জন করোনা রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। অন্যদিকে লকডাউন অথবা নাইট কারফিউ জারি হবে কিনা তা নিয়েও স্পষ্ট করলেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের বাসিন্দাদের অভয়বাণী দেওয়ার পাশাপাশি জানিয়েছেন, করোনা মোকাবিলায় রাজ্য সরকার সমস্ত রকম ভাবে প্রস্তুত। আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকার বার্তা দিয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন রাজ্যের হাসপাতালগুলিতে ৪৫০০ কোভিড বেড বাড়ানো হবে। মোট ২০০টি সেফ হোমে ১১০০ বেডের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পাশাপাশি রাজ্যে ৪০০টি করোনা অ্যাম্বুলেন্স চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাওয়াল করেছেন, অফিস কাছারিতে ৫০% কর্মীদের নিয়ে কাজ করার। বাকিদের ক্ষেত্রে ওয়ার্ক ফ্রম হোম চালু করার দিকে নজর দিতে বলেছেন। তবে এর পাশাপাশি তিনি পুনরায় ৮ দফা ভোটের কারণে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে এই দাবি তুলে নির্বাচন কমিশনকে দোষারোপ করেন।

আরও পড়ুন :

এর পাশাপাশি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামলাতে অন্যান্য রাজ্যের মতো আমাদের রাজ্যে নাইট কার্ফু অথবা লকডাউন হবে কিনা তা প্রশ্ন উঠলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “নাইট কার্ফু জারি করার কোন প্রশ্নই উঠছে না। আমি মনে করি ওটা কোনো সমাধান নয়। সমাধান স্রেফ মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধি করা।” আর মুখ্যমন্ত্রীর এই বার তারপর স্পষ্ট আপাতত রাজ্যে নাইট কার্ফুর কোন ইঙ্গিত নেই। তবে লকডাউন প্রসঙ্গে স্পষ্ট কোনো বার্তা তিনি দেননি।