রামপুরহাট হাসপাতালে চিকিৎসকরা যুবতীর পেট থেকে বের করলেন বিপুল পরিমাণে গয়না

নিজস্ব প্রতিবেদন : অপারেশন করে যুবতীর পাকস্থলী থেকে মিলল ৬০ টি কয়েন সহ সোনার বালা, আংটি, কানের দুল, চেন প্রভৃতি। দীর্ঘ ১ ঘন্টা ১৫ মিনিট ধরে অপারেশ করে বছর বাইশের যুবতীর পেট থেকে এগুলি উদ্ধার করেন রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। এই ঘটনা কার্যত বিরল বলেই জানান চিকিৎসক সিদ্ধার্থ বিশ্বাস।

বমি ও পেটের যন্ত্রণা নিয়ে গত ৭ দিন আগে রামপুরহাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি হন মাড়গ্রামের কানাইপুরের বাসিন্দা রুনী খাতুন নামে এক যুবতী।

জানা গিয়েছে, মহিলাটি মানষিক ভারসাম্যহীন। চিকিৎসক সিদ্ধার্থ বিশ্বাস জানান, এক্সরে দেখে বোঝা যায় তার পেটে মেটাল জাতীয় কিছু রয়েছে। তাই অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। চিকিৎসক সিদ্ধার্থ বিশ্বাসের নেতৃত্বে ৫ সদস্যার একটি প্রতিনিধি দল অপারেশন শুরু করেন। দীর্ঘ ১ ঘন্টা ১৫ মিনিট ধরে অপারেশন হয়। ওই মহিলার পেটের ভিতর থেকে ৬০ টি কয়েন, সোনার চেন, আংটি, পেতলের বালা বালা, ঘড়ি, কানের দুল, নাকের নথ, পায়ের নুপুর প্রভৃতি একাধিক জিনিস পাকস্থলীতে ছিল। এই ঘটনা কার্যত বিরল বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। বর্তমানে ওই রোগীকে সিসিইউ তে রাখা হয়েছে।

রোগীর পরিবারের কাছ থেকে জানা গিয়েছে, কিছুটা মানষিক ভারসাম্যহীন ছিল সে। বাড়িতে মনোহরির দোকান রয়েছে। সেখান থেকেই কয়েন, বালা খেয়ে ফেলেছে। এছাড়া বাড়ির লোকজনের সোনার জিনিস, আস্ত ঘড়ি খেয়ে ফেলেছে সে।