কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় কোন মন্ত্রী কতটা ধনী, কে কতটা শিক্ষিত, কে বিস্ফোরক অভিযোগে অভিযুক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদন : সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতার পর সদ্য গঠিত হয়েছে এনডিএ সরকারের সপ্তদশ মন্ত্রিসভা। সদ্য গঠিত এই মন্ত্রিসভায় রয়েছেন ৫৭ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

সদ্য গঠিত এই মন্ত্রিসভায় যেসকল মন্ত্রীরা রয়েছেন তাদের হলফনামা থেকে জানা যায় ৫৭ জন মন্ত্রীর মধ্যে ৫১ জন মন্ত্রীই কোটিপতি। যাদের মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হারসিমরত কৌর বাদল। অ্যাসোসিয়েশন ফর ডেমোক্রেটিক রিফর্মসের মতে, তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ২১৭ কোটি টাকা।

এছাড়াও বাকি যে ৫০ জন কোটিপতি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রয়েছেন তাদের প্রত্যেকের গড় সম্পত্তির পরিমাণ ১৪ কোটি ৭২ লক্ষ টাকা। মন্ত্রীদের কোটিপতির দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন পীযুষ গোয়েল, যিনি ৯৫ কোটি টাকার মালিক। চারজন মন্ত্রী নিজেই ঘোষণা করেছেন তাদের সম্পত্তির পরিমাণ ৪০ কোটি টাকার বেশি। তৃতীয় স্থানে রয়েছেন রাও ইন্দ্রজিৎ সিংহ, সম্পত্তির পরিমান ৪২ কোটি টাকা।

মন্ত্রিসভায় থাকা ৫ জন মন্ত্রী যারা নিজেরাই ঘোষণা করেছেন তাদের সম্পত্তির পরিমাণ এক কোটি টাকার কম। এদের মধ্যে সবচেয়ে কম অর্থবান মন্ত্রী হলেন, প্রতাপ চন্দ্র সারঙ্গি। যিনি মাত্র ১৩ লক্ষ টাকার সম্পত্তির মালিক।

সদ্য গঠিত মন্ত্রিসভার মন্ত্রীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা প্রসঙ্গে চারজন মন্ত্রী ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা মাধ্যমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিকের মধ্যে। বাকি ৪৮ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্নাতক। একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রয়েছেন যিনি ডিপ্লোমাধারী।

মোদির মন্ত্রিসভার ৫৭ জন মন্ত্রীর মধ্যে ২২ জন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে রয়েছে ফৌজদারি মামলা। যার মধ্যে আবার ১৬ জন মন্ত্রী বিরুদ্ধে গুরুতর অপরাধের মামলা রজু হয়েছে। ছয়জন মন্ত্রী যথাক্রমে প্রতাপচন্দ্র সারঙ্গী, বাবুল সুপ্রিয়, গিরিরাজ সিং, নিত্যানন্দ রায়, অমিত শাহ এবং প্রহ্লাদ যশি মাথায় ঝুলছে ১৫৩ এ আইপিসি ধারা।

ভোটের সময় ভোটদাতাকে প্রভাবিত করা, টাকা ছড়ানো, ঘুষ দেওয়া ইত্যাদি অভিযোগ রয়েছে অশ্বিনী কুমার চৌবে, নীতিন গড়করি, গিরিরাজ সিংহের বিরুদ্ধে।

বিদেশ প্রতিমন্ত্রী ভি মুরলিধরনের বিরুদ্ধে রয়েছে ৩০৭ নং ধারায় খুনের মামলা রুজু হয়েছে, একথা জানা যায় খোদ সরকারি তথ্য থেকে।