বিজ্ঞাপন

প্রেমিকাকে তিরস্কার মায়ের, আত্মঘাতী প্রেমিক, অভিযোগের তীর প্রেমিকার দিকে

বিজ্ঞাপন

হিমাদ্রি মন্ডল : গত শনিবার দুপুর বেলা সিউড়ির দত্তপুকুর পাড়ার বিশ্বজিৎ কাহার নামে ২২ বছর বয়সী এক যুবককে ফোন করে সিউড়ির কুলেরা গ্রামের এক যুবতী। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে দাবি স্থানীয়দের। কিন্তু এই সম্পর্ককে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না ছেলের মা। সে কারণে ওই মেয়েটিকে গালিগালাজ করে বিশ্বজিতের মা। পাশাপাশি তার ছেলের সাথে সম্পর্ক রাখতে নিষেধ করে।

ঘটনা কথা বিশ্বজিৎ জানতে পারলে বিশ্বজিৎ বাড়ি থেকে রাগ করে বেরিয়ে যায় দুপুরবেলায়। বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যে হয়ে যায়, রাতেও বাড়ি ফেরেনি সে। এরপর আজ সকালে দত্তপুকুর পাড়ার কাছেই একটি নিমগাছ থেকে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় বিশ্বজিতের। বিশ্বজিতের মৃতদেহের পাশে পাওয়া যায় মেয়েদের ব্যাগ, ওড়না, মেয়েদের সাইকেল ও কয়েকটি চটি।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় বাসিন্দাদের সন্দেহ, যে মেয়েটির সাথে প্রেম করতো বিশ্বজিৎ ওই মেয়েটি এই ঘটনার বিষয়ে সমস্ত কিছু জানে। এরপর উত্তেজিত জনতা মেয়েটিকে তুলে নিয়ে আসে তার বাড়ি থেকে এবং আটকে রাখে, পাশাপাশি মারধর করার চেষ্টাও করা হয়। যদিও ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় সিউড়ি থানার পুলিশ। পুলিশ গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বজিতের মায়ের দাবি, ওই মেয়েটি তার ছেলেকে খুন করা করিয়েছে। পাশাপাশি একই সন্দেহ স্থানীয় বাসিন্দাদের। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা সিউড়ির দত্তপুকুর পাড়ায়।

অপরদিকে ওই যুবতীর পরিবারের দাবি, যদি সত্যিই দোষ করে থাকে আমাদের মেয়ে তাহলে তার শাস্তি হোক, কিন্তু সবটাই তদন্তের পর।