টোকিও অলিম্পিকের মীরাবাঈ চানুর রুপো বদলে যেতে পারে সোনায়, চলছে জল্পনা

নিজস্ব প্রতিবেদন : টোকিও অলিম্পিক শুরু হওয়ার সাথে সাথেই ইতিহাস গড়েছে ভারত। প্রতিযোগিতা শুরুর দ্বিতীয় দিনেই মনিপুরের মীরাবাঈ চানু ভারোত্তোলনে পদক ছিনিয়ে নিয়ে সেই রেকর্ড গড়েছে। ২১ বছর পর এই ইভেন্টে যেমন তার হাত ধরে পদক এসেছে ভারতের ঝুলিতে ঠিক তেমনি প্রতিযোগিতা শুরুর সাথে সাথেই পদকজয়ী ভারতের কাছে ইতিহাস। আর এবার এই মীরাবাঈ চানুর রুপো বদলে যেতে পারে সোনায়। জল্পনা এমনই।

মীরাবাঈ চানু ৪৯ কেজি ভারোত্তোলন বিভাগে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে রুপো পেয়েছেন। অন্যদিকে এই বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করে সোনা জিতেছেন চীনের ঝিহুই হোউ। নতুন রেকর্ড গড়ে ঝিহুই হোউ স্ন্যাচ ও ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে মোট ২১০ কেজি ওজন তুলতে সক্ষম হয়েছেন এই চিনা ভারত্তোলক। অন্যদিকে এই বিভাগে ভারতের মীরাবাঈ চানু ২০২ কেজি ওজন তুলে দ্বিতীয় স্থানে শেষ করেছেন। অর্থাৎ মীরাবাঈ চানু ঝুলিতে এসেছে রুপো। কিন্তু কিভাবে এই রুপো সোনায় বদলে যেতে পারে?

প্রতিযোগিতা শেষ হওয়ার পর ইতিমধ্যেই মীরাবাঈ চানু গেমস ভিলেজ ছেড়ে চলে এসেছেন। তবে চীনের ঝিহুই হোউকে এখনো গেমস ভিলেজ ছাড়ার অনুমতি দেয়নি কমিটি। সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে আরও একবার ডোপ টেস্ট হতে পারে চীনের ওই ভারত্তোলকের। আর সেই ডোপ টেস্টে যদি চীনের ওই ভারত্তোলক পাশ করতে অসমর্থ হন তাহলে তাকে তার প্রাপ্ত পদক খোয়াতে হবে। তিনি পদক খোয়ালেই চানুর পদকের রং বদলে যাবে।

যদিও এই বিষয়ে এখনো পর্যন্ত ভারতীয় প্রতিনিধি দলের তরফ থেকে কোন বিবৃতি দেওয়া না হলেও বিষয়টির ওপর নজর রাখা হচ্ছে। জানা যাচ্ছে, চিনা প্রতিযোগীর ডোপ টেস্টের প্রথম স্যাম্পেল পরীক্ষা করার পর তাতে সন্দেহজনক কিছু পাওয়া গেলেই দ্বিতীয়বার ডোপ টেস্ট হবে। আর এক্ষেত্রে ডোপ টেস্টে চিনা ওই প্রতিযোগী পাস করতে অসমর্থ হলেই অলিম্পিকের নিয়ম অনুযায়ী চানুর রুপোর মেডেল বদলে যাবে সোনায়।