ভোট প্রচারে বীরভূমে এলেও মঞ্চ এড়ালেন মিঠুন চক্রবর্তী

নিজস্ব প্রতিবেদন : রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি প্রতিনিয়ত ভয়ঙ্কর হওয়ায় নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে রাজনৈতিক দলগুলির প্রচারের ক্ষেত্রে একাধিক বিধি-নিষেধ জারি করেছে। আর এই সকল বিধিনিষেধের মধ্যে রয়েছে জনসভায় ৫০০ জনের বেশি জমায়েত করা যাবে না। আর এই নির্দেশিকা কঠোরভাবে মেনে চলতে খ্যাতনামা অভিনেতা তথা বিজেপি নেতা মিঠুন চক্রবর্তী সোমবার নির্বাচনী প্রচারে বীরভূমের ইলামবাজারের এলেও মঞ্চে উঠলেন না।

বোলপুর বিধানসভায় বিজেপি প্রার্থী ডঃ অনির্বাণ গাঙ্গুলীর সমর্থনে এদিন ইলামবাজার থানার অন্তর্গত নাচনসা গ্রামে প্রচারে আসছেন মিঠুন চক্রবর্তী। আর তার আসার খবরে হেলিপ্যাড এবং মঞ্চের পাশে অজস্র মানুষের জমায়েতে লক্ষ্য করা যায়। পরিস্থিতি দেখে মিঠুন চক্রবর্তী বেশ কিছুক্ষণ কপ্টারেই বসে থাকেন। তারপর কপ্টার থেকে নেমে মঞ্চের না উঠেই হেলিপ্যাড থেকেই বক্তব্য রাখেন।

মিঠুন চক্রবর্তী বক্তব্য রাখার সময় প্রথমেই সকলকে আইন মেনে চলার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি পরামর্শ দেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকলেই সুস্থ থাকেন তার দিকে যেন নজর দেওয়া হয়। এর পরেই তিনি বিজেপি প্রার্থীদের জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান। পাশাপাশি তিনি বলেন, “আমাদের সোনার বাংলা গড়তেই হবে। বিজেপি যা যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সব হবেই।”

আরও পড়ুন :

ইলামবাজারের পর তিনি বীরভূমের মহঃ বাজার থানা এলাকায় একটি ছোট করে সভা করেন। সেখানে তিনি সাঁইথিয়ার বিজেপি প্রার্থী প্রিয়া সাহার সমর্থনে মঞ্চে উঠেই বক্তব্য রাখেন। আর এখানে সভা করার পর মিঠুন চক্রবর্তীর সামনে প্রশ্ন ওঠে কিভাবে ৪৪ বছরের অবস্থাকে পরিবর্তন করবেন? এই প্রশ্নের উত্তরে মিঠুন চক্রবর্তী জানান, “৬ মাসের মধ্যে ম্যাজিক দেখতে পাবেন।”