মা মুড়ি ভাজেন, দারিদ্রের সঙ্গে লড়াই করে উচ্চমাধ্যমিকে অষ্টম গৌরব

নিজস্ব প্রতিবেদন : আলালের ঘরে দুলাল গৌরব। যে সংসারে নুন আনতে পান্তা ফুরোয়, সেই সংসার থেকেই রাজ্যে অষ্ঠম হয়ে রাজ্যবাসীদের নজরে গৌরব।

বাবাকে হারিয়েছে সেই ছেলেবেলায়। সংসারের হাল সামলাতে মা মুড়ি ভাজার রাস্তা বেছে নেন। শত কষ্ঠ সত্ত্বেও ছেলের যেন পড়াশুনায় কোনো ব্যাঘাত না ঘটে সেদিকেই নজর ছিল মায়ের। আর এই অভাবের তারণাও গৌরবকে হার মানাতে পারেনি। নিজ লক্ষ্যে সবসময় থেকেছে অবিচল।

আর আজ নিজের ইচ্ছা শক্তি, জেদ আর মেধাকে সঙ্গী করে সে আজ গেল পৌঁছে সাফল্যের উচ্চ শিখরে। বাঁকুড়া বঙ্গ বিদ্যালয়ের গৌরব সিংহ উচ্চমাধ্যামিকে ৪৮৮ নম্বর পেয়ে রাজ্যে মেধা তাল্লিকায় নিজের স্থান করে নিল অষ্টম। সে যেন প্রমান করে দিল অদম্য জেদ আর মেধার কাছে কোন বাধাই বাধা নয়।

ডাউনলোড মোবাইল অ্যাপBanglaXp

ভবিষ্যতে ডাক্তার হতে হওয়ার স্বপ্ন দেখছে গৌরব। নিজের দারিদ্রকে উপলবব্ধি করে আর্ত মানুষদের সেবায় এগিয়ে আসতে চায় সে। দিনের প্রায় পুরো সময়টাই তাঁর কাটে বই নিয়েই। বাকি সময় গান শোনে। প্রতিদিন প্রায় ১২/১ ঘণ্টা পড়াশুনা করেছে সে। তার এই সাফল্যের পিছনে শিক্ষকদের ভূমিকার কথা কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেছে গৌরব৷ অবশ্য এই দারিদ্রতার মাঝে ভবিষ্যতে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখা এই কৃতী ছাত্র কিভাবে তার লক্ষ্যে পৌঁছাবে সেটাই এখন চ্যালেঞ্জের।