e-Rupi লঞ্চ করলেন প্রধানমন্ত্রী, কিভাবে কাজ করবে, কি সুবিধা এতে

নিজস্ব প্রতিবেদন : দেশের মানুষদের সরাসরি সাহায্য পাঠানোর ক্ষেত্রে একাধিক সময়ে নানান ত্রুটি দেখা দেয়। এর ফলে উপভোক্তা বিভিন্ন সুবিধা থেকে বঞ্চিত হন। এই সকল সমস্যার সমাধান রুখতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সোমবার উদ্বোধন করলেন e-Rupi। কারচুপি রুখে দেওয়ার ক্ষেত্রে এই ব্যবস্থা যথেষ্ট অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে এবং ডাইরেক্ট বেনিফিট ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে লিক-প্রুফ পরিষেবা দেওয়াই হল এই ব্যবস্থাপনার প্রধান উদ্দেশ্য।

e-Rupi তৈরি করা হয়েছে ন্যাশনাল পেমেন্টস কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া, ডিপার্টমেন্ট অফ ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস এবং ন্যাশনাল হেলথ অথরিটির যৌথ উদ্যোগে। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, এনসিপিআই দ্বারা তৈরি এই ইউনিফাইড পেমেন্ট ইন্টারফেস নির্বিঘ্নে রিয়েল-টাইমে অর্থ লেনদেনের সুবিধা দেবে।

এই ব্যবস্থা কাজ করবে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ওয়ান টাইম পেমেন্ট মেকানিজম পদ্ধতিতে কাজ করবে। উপভোক্তা নিজের মোবাইলে কিউআর কোড অথবা এসএমএসের মাধ্যমে ভাউচার কোড পাবেন। যে ভাউচারের সাহায্যে পেমেন্ট করা যাবে। মোটের উপর এটি হলো একটি নগদহীন অর্থাৎ ডিজিটাল লেনদেন। নেশনাল হেলথ অথরিটি দাবি করেছে, ‘এটি হলো সহজ এবং সবচেয়ে নিরাপদ মাধ্যম। এখানে গোপনীয়তার বিষয়টিকে সবথেকে নজরে রাখা হয়েছে।’

e-Rupi ব্যবস্থার সাথে যুক্ত হয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, এইচডিএফসি ব্যাঙ্ক, পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক। প্রধানমন্ত্রী দপ্তর জানিয়েছে, বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের ক্ষেত্রে এই e-Rupi ব্যবস্থা কাজে লাগানো হবে। এর ফলে অর্থের সুরক্ষা আরও বাড়বে। মা ও শিশু কল্যাণ, টিবি নির্মূল প্রকল্পের ওষুধপত্র, পুষ্টিকর খাদ্য প্রদানের ক্ষেত্রে এই ব্যবস্থা কাজে আসবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে আয়ুষ্মান ভারত, প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা অল্প আয়ের মানুষদের সাহায্য করা হবে।

e-Rupi ব্যবস্থার ক্ষেত্রে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো। এই প্রকল্পের মাধ্যমে সুবিধা নেওয়ার জন্য উপভোক্তাদের কোনরকম ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট অথবা আধার নম্বরের বিবরণ দিতে হবে না।