এবারের পুরীর রথের থাকছে বিশেষ বিশেষত্ব, খরচ ৪০ লাখ

নিজস্ব প্রতিবেদন : হাতেগোনা আর কয়েকটি দিন, তার পরেই রয়েছে পুরীর রথ। প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ ভক্তরা এই পুরীর রথের জন্য অপেক্ষা করে থাকেন। গত দু’বছর করোনা পরিস্থিতি চলার কারণে অনেকটাই জৌলুস হারিয়ে ছিল এই পুরীর রথ। তবে এবার স্বমহিমায় ফিরছে জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রার পুরীর রথ।

এবার রথযাত্রায় না চমক অপেক্ষা করছে ভক্তদের জন্য। ১২ বছর পর পুরীর রথ এবার থাকছে নতুন রথ। নতুন এই রথ তৈরি করার জন্য হাত লাগিয়েছেন ওড়িশার আট কারিগর। আগামী ২৫ জুনের মধ্যে এই নতুন রথ তৈরি হয়ে যাবে। এবারের এই নতুন রথে রয়েছে বিশেষ কতগুলি বৈশিষ্ট্য। ৪০ লাখ টাকা দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে এই পুরীর রথ।

জানা যাচ্ছে, এবারের পুরীর রথের উচ্চতা হবে ৩৬ ফুট। আগে এই রথের উচ্চতা ছিল ২০ ফুট। রথটির দৈর্ঘ্য ও প্রস্থের উচ্চতা ২৬ ফিট। রথের প্রতিটি চাকার উচ্চতা ৪ ফিট করে। রথে থাকবে চারটি দরজা, চারটি ঘোড়া।

জগন্নাথ দেব মন্দির ট্রাস্টের তরফ থেকে জানা যাচ্ছে, এই নতুন রথ তৈরি করতে খরচ হচ্ছে ৪০ লক্ষ টাকা। সাখুয়া কাঠ দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে রথ। আগামী ১৪ জুন স্নান যাত্রা মহোৎসব করা হবে। এই দিন থেকেই জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রার মূর্তি ঢাকা থাকবে রথযাত্রা পর্যন্ত। জগন্নাথ, বলরাম এবং সুভদ্রার আসল মূর্তি যেখানে থাকে সেখানে থাকবে রাধাকৃষ্ণের মূর্তি।

ইতিমধ্যেই রথের চাকা তৈরি হয়ে গিয়েছে এবং রবিবার থেকে রথের কাঠামো তৈরি করার কাজ শুরু হয়েছে। এবার পুরীতে রথযাত্রা উপলক্ষে ঘটা করে অনুষ্ঠান করার চিন্তাভাবনা এবং আয়োজন করছে জগন্নাথ মন্দির ট্রাস্ট কমিটি।