DA Arrears Online Payment: ঝট করে মিলবে বকেয়া টাকা, শিক্ষক শিক্ষিকাদের ফের একটি সুখবর দিল রাজ্য

Madhab Das

Published on:

নিজস্ব প্রতিবেদন : রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফ থেকে গত কয়েক মাস ধরে নতুন নতুন ঘোষণা করা হচ্ছে। এমন ঘোষণা মূলত শুরু হয়ে গত বছর ডিসেম্বর মাসের ২১ তারিখ থেকে। ডিসেম্বর মাসের ২১ তারিখ প্রথমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চার শতাংশ ডিএ বৃদ্ধি করার ঘোষণা করেন। এরপর আবার রাজ্য বাজেটে পুনরায় ৪ শতাংশ ডিএ বৃদ্ধির ঘোষণা করা হয়। এসবের মধ্যে এবার নতুন ঘোষণা হলো বকেয়া টাকা (DA Arrears) নিয়ে।

গত বছর ডিসেম্বর মাসের ২১ তারিখ যে ডিএ বৃদ্ধি করা হয়েছিল তা কার্যকর হয় ২০২৪ সালের ১ জানুয়ারি থেকে। অন্যদিকে ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে নতুন করে যে ৪ শতাংশ ডিএ বৃদ্ধির ঘোষণা করা হয় তা প্রথমদিকে এপ্রিল মাস থেকে কার্যকর হওয়ার ঘোষণা করা হলেও পরবর্তীতে আবার এপ্রিল থেকেই তা কার্যকর হবে বলে জানানো হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বকেয়া টাকা রয়েছে। সেই টাকা পেমেন্ট হবে নতুন পদ্ধতির মাধ্যমে বলেই জানিয়েছে শিক্ষা দপ্তর।

বকেয়া টাকা দেওয়ার ক্ষেত্রে নতুন যে ব্যবস্থার কথা বলা হয়েছে তা হল অনলাইন পোর্টাল (DA Arrears Online Payment)। অনলাইনের মাধ্যমে বকেয়া টাকা দেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে ঝামেলা থাকবে না কোনরকম আর ঝামেলা ছাড়াই ঝট করে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকে যাবে। তবে বকেয়া টাকার যে হিসাব রয়েছে তা দিতে হবে স্কুল কর্তৃপক্ষকেই। ইতিমধ্যেই এই মর্মে রাজ্যের প্রত্যেক প্রধান শিক্ষকদের শিক্ষা দপ্তরের তরফ থেকে বার্তা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন 👉 Duare Sarkar: ১০০০-১২০০ টাকা পাওয়ার আসছে দুর্দান্ত সুযোগ! পাড়াতে বসেই করা যাবে আবেদন

বকেয়া টাকা দেওয়ার ক্ষেত্রে এর আগে বেশ জটিলতা ছিল এবং সেই জটিলতা থাকার কারণে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সেই টাকা পেতে অনেকটাই সময় লেগে যেত। এবার শিক্ষা দপ্তর সেই জটিলতা কাটিয়ে সরলীকরণ ব্যবস্থা আনার ফলে স্কুল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে বকেয়া টাকার হিসেব অনলাইন পোর্টালে আপলোড করলেই তা অ্যাকাউন্টে ঢুকে যাবে। এর জন্য আর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের কারো মুখ তাকিয়ে থাকতে হবে না।

বকেয়া টাকা পাওয়ার ক্ষেত্রে এর আগে বহু কাঠখড় পোড়াতে হতো শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। এমনকি পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছে যেত যে শিক্ষক শিক্ষিকাদের টাকা আদায়ের জন্য ধরনা পর্যন্ত দিতে হতো। এমন পরিস্থিতিতে এবার শিক্ষা দপ্তর নতুন পদ্ধতি চালু করার পরিপ্রেক্ষিতে আর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বকেয়া টাকার জন্য যেমন কারো মুখের দিকে তাকাতে হবে না ঠিক সেই রকমই আবার এমন ঝামেলায় পড়তে হবে না। শিক্ষক মহলের তরফ থেকে রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের এমন পদক্ষেপকে স্বাগত জানানো হয়েছে।