Tv Channel Price: ১৩০-১৬০ টাকা কমে যাবে টিভি দেখার খরচ! কেন্দ্রের নয়া নিয়ম ঘিরে জল্পনা, স্বস্তি পেতে পারেন মধ্যবিত্তরা

Madhab Das

Published on:

নিজস্ব প্রতিবেদন : এখনকার দিনে দেশের এমন কোন বাড়ি নেই যেসকল বাড়িতে টিভি নেই বললেই চলে। অধিকাংশ বাড়িতেই টিভি পৌঁছে যাওয়ার পাশাপাশি টিভি দেখার ধাঁচও বদলে গিয়েছে। আগে যেখানে সীমিত কিছু টিভি চ্যানেল (Tv Channel) দেখেই কাটাতে হতো, সেই জায়গায় এখন হাজার হাজার চ্যানেলের সূচনা হয়েছে। তবে এসবের পাশাপাশি আবার টিভি দেখার (Tv Channel Price) খরচও বেড়ে গিয়েছে কয়েক বছরে।

গত কয়েক বছর ধরে টিভি চ্যানেলগুলির উপর বিভিন্ন ধরনের কর এবং চ্যানেলগুলির দাম বৃদ্ধি করার ফলে এখন ২০০ টাকার নিচে মনোমতো চ্যানেল পাওয়া যায় না বললেই চলে। তবে এই খরচ এবার কমে যেতে পারে এমনই জল্পনা তৈরি হচ্ছে। খরচ কমে যাওয়ার যে জল্পনা তৈরি হচ্ছে তা মূলত ট্রাইয়ের দুটি নিয়মে বদলা আনার পরিপ্রেক্ষিতে।

ট্রাইয়ের তরফ থেকে কেবল টিভির পরিষেবা সংক্রান্ত যে দুটি নিয়মে বদলানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তার মধ্যে একটি হল সেটটপ বক্স পরিবর্তন না করা। যদি কোন গ্রাহক কেবল টিভি পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা পরিবর্তন করেন তবুও তাকে সেট টপ বক্স বদলাতে হবে না। এই নিয়ম অনেকটা মোবাইল নম্বর পোর্ট করার মত। মোবাইল নম্বর পোর্ট করার ক্ষেত্রে নম্বর পরিবর্তন না করেই যেমন এক সংস্থা থেকে অন্য সংস্থায় যাওয়া যায়, ঠিক সেই রকমই ব্যবস্থা চালু হতে চলেছে টিভির সেট-টপ বক্সের ক্ষেত্রেও।

আরও পড়ুন 👉 TV Tips: কত ইঞ্চির টিভি কত দূর থেকে দেখা উচিত? না জানলে হতে পারে বড় ক্ষতি

সেট টপ বক্স সংক্রান্ত এমন পরিবর্তন আনার পাশাপাশি ট্রাই নির্দেশ দিয়েছে গ্রাহকদের থেকে নেটওয়ার্ক ক্যাপাসিটি ফি নেওয়া যাবেনা। ক্যাপাসিটি ফি না নেওয়ার নির্দেশ কার্যকর হলে আমজনতার অনেকটাই সুবিধা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। যদিও এর ফলে আবার অন্য কোন চার্জ বসিয়ে টিভি দেখার খরচ বাড়বে নাকি কমবে তা নিয়ে এখনো ধন্দ রয়েছে। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, নেটওয়ার্ক ক্যাপাসিটি ফি হিসেবে প্রতি মাসে গ্রাহকদের থেকে ১৩০ থেকে ১৬০ টাকা চার্জ নেওয়া হয়। এই চার্জ তুলে দেওয়া হলে তা গ্রাহকদের কাছে অনেকটাই স্বস্তি হবে।

ট্রাইয়ের নির্দেশ অনুযায়ী নতুন এই দুটি নিয়ম কার্যকর হলে টিভি দেখার খরচ অনেকটাই কমে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। কেননা সেট টপ বক্স পরিবর্তন না করেই এক সংস্থা থেকে অন্য সংস্থায় যাওয়ার ব্যবস্থা চালু হলে বাড়বে প্রতিযোগিতা। এছাড়াও নেটওয়ার্ক ক্যাপাসিটি ফি হিসেবে অনেক টাকাই দিতে হয় গ্রাহকদের। সুতরাং আগামী দিনে দেশের মানুষদের টিভি দেখার খরচ কমে যেতে পারে বলেই জল্পনা তৈরি হচ্ছে।