বাসের ছাদে কেরামতি স্পাইডারম্যানের, দুর্গাপুরের ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

নিজস্ব প্রতিবেদন : কোথাও কিছু নেই, হঠাৎ দুর্গাপুরের জনবহুল এলাকা সিটি সেন্টার (Durgapur City Centre) সরকারি বাসস্ট্যান্ডে (Bus stand) এদিক-ওদিক লাফিয়ে বেড়াতে দেখা যায় স্পাইডারম্যানকে (Spiderman)। কখনো সরকারি বাসের ছাদে কেরামতি দেখায় ওই স্পাইডারম্যান, কখনো আবার এই বাসের ছাদ থেকে ওই বাসের ছাদে লাফ। হঠাৎ চোখের সামনে এমন দৃশ্য দেখে স্বাভাবিকভাবেই হতচকিত হয়ে যান স্থানীয়রা। শনিবার বিকালে এমনই হতচকিত করে দেওয়ার মতো ঘটনা লক্ষ্য করা যায়।

সাধারণ মানুষকে হতচকিত করার পাশাপাশি ওই স্পাইডারম্যান তাদের মজা দেয় একেবারে অবিকল স্পাইডারম্যানের মতই কেরামতি দেখিয়ে। স্পাইডারম্যানের ওই কেরামতি দেখে স্থানীয়রা ধীরে ধীরে ভিড় জমাতে শুরু করেন এলাকায়। আর সেই সকল আমজনতার স্মার্টফোনেই ওই অবাক করা দৃশ্য ক্যামেরাবন্দী হয় এবং পরে তা সোশ্যাল (Viral on Social media) মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে।

রুপোলি পর্দায় আমরা কমবেশি অধিকাংশ মানুষই স্পাইডারম্যানকে দেখেছি। সেখানেই যেমন স্পাইডারম্যান কেরামতি দেখায় সেই একই ধরনের কেরামতি বাস্তবে চোখের সামনে দেখতে পেলে তা তো অবাক করার বিষয় হবে। এ নিয়ে তো কোন সন্দেহ থাকে না। দুর্গাপুরের সিটি সেন্টারে এদিন যে স্পাইডারম্যানকে লক্ষ্য করা যায় তাকেও দেখা যায় বাসের ছাদে নানান অঙ্গভঙ্গি করে কেরামতি দেখাচ্ছে। এই স্পাইডারম্যানের বডি ফিটনেস এবং তার অঙ্গভঙ্গি দেখে স্থানীয়রা বেশ মজে ওঠেন।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শনিবার প্রায় ঘন্টা দুয়েক এমন ঘটনা ঘটায় ওই স্পাইডারম্যান। এরপর যখন ভিড় বাড়তে শুরু করে তখন ওই সরকারি বাসস্ট্যান্ডের কর্মীরাই তাকে বাসের ছাদ থেকে নামতে বলেন। তবে বাসস্ট্যান্ডের মধ্যে এমন ঘটনা নিয়ে সাধারণ মানুষদের মধ্যে কৌতূহল শুরু হয়। অনেকেই ওই ব্যক্তিকে তার মুখোশ খুলতে অনুরোধ করেন, তবে কোনোভাবেই আমল দেননি উনি।

স্থানীয়দের এই ঘটনা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তারাও কিছু জানাতে পারেননি ঠিক কি কারণে এমনটা করেছেন ওই ব্যক্তি। স্থানীয় দোকানদার এবং মানুষেরা জানান, “হঠাৎ দেখতে পাই এইভাবে পাশের ছাদে খেলা দেখাচ্ছেন স্পাইডারম্যানের পোশাক পরা কেউ একজন। তবে সে স্পাইডারম্যানের পোশাক পরে থাকলেও হুবহু স্পাইডারম্যানের মতোই কেরামতি দেখাচ্ছিলো। কি কারনে কোথায় থেকে এসেছেন কিছুই জানা নেই।”

অন্যদিকে সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, এই স্পাইডারম্যানের পোশাক পড়ে কেরামতি দেখানো হয় শুটিংয়ের জন্য। স্থানীয় কোন এক ইউটিউবার বা ব্লগার শুটিংয়ের জন্য এমনটা করেছেন। তবে এই ঘটনার পর বিষয়টি নিয়ে মানুষদের মধ্যে কৌতূহল চরমে।