রাজনীতিতে ইন্দ্রপতন, ট্যুইট করে শোক প্রকাশ মোদি থেকে মমতার

নিজস্ব প্রতিবেদন : মঙ্গলবার বুকে ব্যথা নিয়ে রাত্রি ৯ টা নাগাদ দিল্লির এইমসে ভর্তি হন দেশের প্রাক্তণ বিদেশমন্ত্রী ও বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজ। এরপর আর সুস্থ হয়ে ওঠা হলো না তাঁর, রাতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

তাঁর মৃত্যুর পর শোক প্রকাশ একের পর এক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের। মোদি থেকে মমতা ট্যুইট করে শোক প্রকাশ করেছেন, স্মৃতিচারণ করেছেন সুষমা স্বরাজের কৃতিত্বকে, তাঁর রাজনৈতিক জীবনের মূল্যবান সময়কে।

তাঁর প্রয়াণের পর ট্যুইটারে মোদী লিখেছেন, “ভারতীয় রাজনীতির গৌরবজ্জ্বল অধ্যায়ের অবসান হল। অসাধারণ নেত্রীর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ভারত। গরিবের জীবনের উন্নতি ও সাধারণ মানুষকে পরিষেবা দেওয়ার জন্য নিজের জীবনকে উত্সর্গ করেছিলেন। কোটি কোটি মানুষকে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন সুষমা জি।”

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শোক প্রকাশ করেছেন, ট্যুইটারে লিখেছেন, “সুষমা স্বরাজ জি-র অকস্মাৎ প্রয়াণে শোকস্তব্ধ ও স্তম্ভিত। ১৯৯০ থেকে চিনি তাঁকে। আদর্শ আলাদা হলেও সংসদে দারুণ সময় কাটিয়েছি আমরা। দারুণ রাজনীতিবিদ, নেতা, ভালো মানুষ ছিলেন। উনার অভাব অনুভব করবো। তাঁর পরিবার ও অনুগামীদের সমাবেদনা জানাই।”

সুষমা স্বরাজ বিদেশমন্ত্রী হিসেবে যথেষ্ট প্রশংসিত হয়েছিলেন। বিশ্বের যে কোনো প্রান্তে যখনই কোনো ভারতীয় অসুবিধায় পড়তেন তিনি তাঁদের পাশে দাঁড়াতেন। বিদেশমন্ত্রীর দায়িত্ব তিনি যথেষ্ট সফলতার সঙ্গে পালন করেছিলেন। তাঁর ভূমিকার কথা দেশবাসী শ্রদ্ধার সহিত মনে রাখবে। এবারের লোকসভা নির্বাচনে তিনি নিজেই দাঁড়াতে চাননি। অসুস্থতার কারণে তিনি অব‍্যাহতি চেয়েছিলেন। দিল্লির এইমসে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চিকিৎসার জন্য ভর্তি হবার পর বিজেপির জে.পি.নাড্ডা সহ অন্যান্য নেতারা তাঁকে দেখতে যান।

হৃদযন্ত্র বিকল হয়ে যাওয়ায় মৃত্যু হয়েছে তাঁর। বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।