টিম ইন্ডিয়ায় ছাঁটাই দু-জন! ব্যাপক রদবদল দলে, কঠিন সিদ্ধান্ত BCCI-এর

নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১৮ রানের হারের পর সবাই হতাশ৷ ফ্যান থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞ সকলেই ধোনিকে কেন সাত নম্বরে নামানো হল এই প্রশ্ন তুলেছেন৷ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই শাস্ত্রীকে তুলোধোনা করেছেন। আর এই ভরাডুবির পরই ইতিমধ্যে স্লোগান উঠে গিয়েছে ‘শাস্ত্রী হঠাও’। বিশ্বকাপে ভারতের বিদায়ের পিছনে সবাই কোচ শাস্ত্রীর অপরিণামদর্শিতা দেখছেন।

Source

তবে এত কিছুর পরও মুখ খোলেননি কোচ রবি শাস্ত্রী। অবশেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে শাস্ত্রী জানালেন ধোনিকে পরে নামানোর সিদ্ধান্ত দলগত ছিল৷ তিনি বললেন, ‘‘এটা দলের সিদ্ধান্ত ছিল, সকলে এই সিদ্ধান্তের পক্ষে ছিল৷ কারণ এটা কেউই চাইবে না ধোনি তাড়াতাড়ি ব্যাট করতে নেমে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে আসুক৷ তাহলে তাড়া করার বিষয়টা তখনই শেষ হয়ে যেত৷ ওঁর অভিজ্ঞতা আমরা পরে কাজে লাগাতে চেয়েছিলাম৷ ও সর্বকালীন সেরা ফিনিশার৷ গোটা দল এই বিষয়টি নিয়ে একমত ছিল।’’

তিনি আরও বলেন ”চার নম্বরে আমাদের একজন সলিড, স্পেশালিস্ট ব্যাটসম্যান দরকার ছিল। মিডল অর্ডারে আমাদের একজন ভাল ব্যাটসম্যানের অভাব ভোগাচ্ছে আমাদের।”

খুব সম্ভবত কোপ পড়তে চলেছে ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গারের উপরে। কোহলিদের ব্যাটিং বিপর্যয়ের অন্যতম ফ্যাক্টর ধরা হচ্ছে বাঙ্গারকেও। এমনিতে বোলিং এবং ফিল্ডিংয়ে ভারত বিশ্বের অন্যতম সেরা। ফিল্ডিং কোচ হিসেবে আর শ্রীধর দারুণ কাজ করেছেন। বোলিংয়ের বুমরাদের বদলে যাওয়ার পিছনে ভরত অরুণের হাত দেখছে বিসিসিআই।

Source

তবে বাঙ্গারের পারফরম্যান্সে একদমই প্রভাবিত নয় বোর্ড। এত সময় পেয়েও চার নম্বর পজিশনে নির্দিষ্ট কোনও ক্রিকেটারদের ফিট না করতে পারার ব্যর্থতা বাঙ্গারেরও। তাই খুব সম্ভবত চাকরি হারাতে চলেছেন তিনি।
বারংবার মিডল অর্ডারের পরিবর্তনে ধাক্কা খেয়েছে দলগঠন। এই রোগের কোনও প্রতিষেধকও বের করতে পারেননি তিনি। পাশাপাশি তিনি ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করেছেন বোর্ডকে। তিনিই প্রথমে জানিয়েছিলেন বিজয়শঙ্কর ফিট। পরে বিজয়শঙ্কর চোটের কারণেই ম্যাচ থেকে ছিটকে যান। বাঙ্গারের পাশাপাশি চাকরি যেতে পারে দলের ম্যানেজার সুনীল সুব্রহ্মণ্যমেরও।

শাস্ত্রীর সঙ্গে বিসিসিআইয়ের বিশ্বকাপ পর্যন্তই চুক্তি ছিল। তবে বিশ্বকাপের পরে শাস্ত্রী সহ বাকি কোচিং স্টাফ বোলিং কোচ ভরত অরুণ, ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধরের মেয়াদ আরও ৪৫ দিন বাড়ানো হচ্ছে। আগেই সরে দাঁড়িয়েছেন দলের ফিজিও প্যাট্রিক ফারহাত এবং কন্ডিশনিং কোচ শঙ্কর বাসু। তবে বাকি কোচিং স্টাফের মেয়াদ বাড়ানোতেই পরিষ্কার কোচিং স্টাফ পরিবর্তনের আগেই ধীরে সুস্থে এগোতে চাইছেন টিম ইন্ডিয়া।