WhatsApp-এ ঘুরছে ভুয়ো মেসেজ! সাবধান হন এখনই

নিজস্ব প্রতিবেদন : গতকাল রাতের ঘটনায় আমরা রীতিমত চাঞ্চল্যের মধ্যে পড়ে যায় বেশিরভাগ মানুষ। চলছেনা ফেসবুক, চলছেনা হোয়াটসঅ্যাপ! সবার মধ্যে একটি আলোচনা কি হলো! কি হলো! নিজেদের একাউন্টে কোন গণ্ডগোল হয়নি! সেই বিভ্রান্তি অবশেষে জানতে পারে সকলেই ফেসবুকে তরফ থেকে ট্যুইটারে করা একটি ট্যুইটে, যদিও এদিক ওদিক খবরটা চলেই গেছিল,ফেসবুক এবং ফেসবুকের দোসর হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রামে চলছে প্রযুক্তিগত ত্রুটি।

Image Source : bengali.indianexpress.com

এক রাতের এই ঘটনায় যেমন বিশ্বজুড়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছিল, ঠিক তেমনই আরও এক বিভ্রান্তি ঘুরে বেড়াচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপে হোয়াটসঅ্যাপে। কি সেই বিভ্রান্তি? গতকাল রাতের এই প্রযুক্তিগত ত্রুটির পর থেকে বিভিন্ন জনের হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ আসছে, “প্রতিদিন রাত্রি সাড়ে ১১ টা থেকে সকাল ছয়টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে হোয়াটসঅ্যাপ।” আর এই সিদ্ধান্তের সাথে জড়িয়ে পড়ে মোদি সরকারের নামও। “এই সময়কাল এই জনপ্রিয় অ্যাপ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার।”

কিন্তু এখানেই কি শেষ! না, তারপরেও রয়েছে সেই গুজবের মারাত্মক অংশ। হোয়াটসঅ্যাপে আসা সেই মেসেজের শেষের অংশে লেখা আছে, “এই মেসেজ সেন্ড করুন আপনার কন্টাক্ট লিস্টে থাকা সমস্ত নাম্বারে। যদিনা শেয়ার করেন তাহলে বন্ধ হয়ে যাবে আপনার অ্যাকাউন্ট। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ডিলিটও করে দেবেন এই মেসেজ। অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরে রি এক্টিভেশন করতে চাইলে ৪৯৯ টাকা চার্জ লাগবে। ৬ তারিখ থেকে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে অতিরিক্ত খরচ দিতে হবে ইউজারদের।”

Image Source : bengali.indianexpress.com

এই ভাবেই লক্ষ লক্ষ গুজব ছড়িয়ে পড়ে আজ সকাল থেকে সারাদিন। আসলে সবটাই ভুয়ো। আর এই ভুয়ো ম্যাসেজ কেউ বা কারা কি অভিসন্ধি নিয়ে রটিয়েছে তা প্রশ্নাতীত।

তবে হোয়াটসঅ্যাপ সংস্থার তরফ থেকে গ্রাহকদের নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে, “এই ভুয়ো মেসেজ কেউ শেয়ার করবেন না। রুটিন মাফিক রক্ষণাবেক্ষণ করা হচ্ছিল বুধবার রাতে। যে কারণে কোন ফাইল যেমন অডিও, ভিডিও অথবা ইমেজ পাঠানো যাচ্ছিল না। কারণ ওই রক্ষণাবেক্ষণের সময় সামান্য ত্রুটি হয়। সেই সমস্যা কাটিয়ে স্বমহিমায় পুনরায় ফিরেছে হোয়াটসঅ্যাপ।” তাই অযথা ভুয়ো খবরটি শেয়ার করবেন না।