হাতে আর ১০ দিন, আধার কার্ড থাকলে পেতে পারেন ৩০,০০০ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদন : আপনার আধার কার্ডই এবার এনে দিতে পারে নগদ ৩০,০০০ টাকা৷ ভাবছেন এটা কীভাবে সম্ভব? হ্যাঁ, সম্ভব। ‘মাই আধার অনলাইন’ নামে একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে UIDAI। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, আধার তালিকার আওতাভুক্ত ভারতের সমস্ত নাগরিকরাই অংশগ্রহণ করতে পারবেন এই প্রতিযোগিতায়। অংশগ্রহণের শেষ তারিখ ৮ই জুলাই। ফাইনালিস্টদের ডেকে নেওয়া হবে আগস্টের ৩১ তারিখের মধ্যে।

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন‍্য কয়েকটি স্টেপ অবলম্বন করতে হবে।ওয়েবসাইটে গিয়ে মাই আধার অনলাইন কম্পিটিশনে ক্লিক করতে হবে এবং সেখানে বিভিন্ন অপশন পাবেন তার মধ্যে থেকে যেকোনো একটি অপশন বেছে নিয়ে তার গ্রাফিক্যাল ভিডিও বানিয়ে নিজস্ব ইউটিউব চ‍্যানেলে আপলোড করে, UIDAI এর মেল আইডিতে মেল করতে হবে এবং সেখান থেকে বেছে নিয়ে মোট ৪৫ জনকে পুরষ্কৃত করা হবে।

কি এই প্রতিযোগিতা?

আধার সংক্রান্ত বহু অনলাইন পরিষেবা রয়েছে৷ যেমন, আধার কার্ড ডাউনলোড কিংবা আধার কার্ডে ঠিকানা পরিবর্তনের মতো কাজ৷ এরকম ১৫টি বাছাই করা অনলাইন পরিষেবার কথা উল্লেখ করা হয়েছে৷ তার মধ্যে থেকে যেকোনও একটি পরিষেবা বা টপিক বেছে নিয়ে প্রতিযোগীদের তার গ্রাফিকাল বা অ্যানিমেশন ভিডিও টিউটোরিয়াল বানাতে হবে৷

ভিডিওটি বানানোর জন্য কিছু শর্ত ও নির্দেশের উল্লেখও রয়েছে সেখানে৷ ভিডিওটি ৩০ সেকেন্ড থেকে ১২০ সেকেন্ডের মধ্যে হতে হবে৷ একই সঙ্গে ভিডিওটির অডিও হতে হবে সুস্পষ্ট৷ ভিডিও তৈরির পর গুগল ড্রাইভ ও ইউটিউবে আপলোড করে মেল করে পাঠাতে হবে UIDAI কর্তৃপক্ষের এই মেল আইডি-তে media.division@uidai.net.in৷ এছাড়াও ফাইল শেয়ারিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে মেল পাঠানো যাবে৷

কি নিয়ে ভিডিও বানাতে হবে?

১. আধার কার্ড ডাউনলোডের পদ্ধতি
২. আধার কার্ডের বর্তমান স্ট্যাটাস জানার পদ্ধতি
৩. নিকটস্থ আধার কেন্দ্রের সন্ধানের পদ্ধতি
৪. অনলাইনে আধার কার্ড আপডেট করার পদ্ধতি
৫. অনলাইনের আধার কার্ডের ঠিকানা পরিবর্তনের পদ্ধতি
৬. অ্যাড্রেস ভ্যালিডেশন লেটার পাওয়ার পদ্ধতি
৭. হারানো ইআইডিবা ইউআইডি নম্বর ফিরে পাওয়ার পদ্ধতি
৮. অনলাইনে আধার কার্ড রি-প্রিন্টের পদ্ধতি 
৯. আইডি জেনারেটের পদ্ধতি
১০. বায়োমেট্রিক পদ্ধতির ব্যবহার
১১. আধার কার্ডে ব্যবহৃত তথ্যের সত্যতা যাচাইয়ের পদ্ধতি 
১২.আধার কার্ড লক ও আনলক করার পদ্ধতি
১৩. ইমেল ও মোবাইল নম্বর পরীক্ষার পদ্ধতি
১৪. অনলাইনে যে কোনও আধার কার্ড পরীক্ষা পদ্ধতি
১৫. আধার কার্ডে ব্যবহৃত তথ্য পরিবর্তনের পদ্ধতি

ভিডিও তৈরির সময় খেয়াল রাখুন

ভিডিওটির দৈর্ঘ্য হতে হবে ৩০ সেকেন্ড থেকে ১২০ সেকেন্ডের মধ্যে।

গ্রাফিক্যাল বা হোয়াইট বোর্ড অ্যানিমেশনে তৈরি করতে হবে ভিডিওটি।

ভিডিওটি তৈরির পর সেটিকে ইউটিউবের মতো ভিডিও শেয়ারিং সাইটে আপলোড করতে হবে। এরপর সেই ভিডিও-র লিংক পাঠিয়ে দিতে হবে UIDAI -এর ইমেল আইডি media.division@uidai.net.in.-এ। অন্য কোনও পদ্ধতিতে ভিডিও পাঠালে তা গ্রহণযোগ্য হবে না।

ভিডিওটি অবশ্যই MP4, AVI, FLV, WMV, MPEG বা MOV ফরম্যাটে করতে হবে।

অংশগ্রহণের জন্য প্রতিযোগীদের আধার কার্ডে দেওয়া তথ্যই ব্যবহার করতে হবে।

অর্থাৎ উপরোক্ত নিয়ম মেনে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভিডিও তৈরি করে জমা দিলে এবং আপনার তৈরি ভিডিও সবচেয়ে আকর্ষণীয় হয় তাহলে  আপনিও পেয়ে যেতে পারেন  ৩০,০০০ টাকা।  তাহলে আর দেরি কিসের? চটপট ভিডিও তৈরিতে লেগে পড়ুন এবং এই প্রতিবেদনটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে ওনাদেরও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার জন্য বলুন।