ভিনরাজ্যে আটকে পড়া বাসিন্দাদের ফেরাতে চলবে বিশেষ ট্রেন, ঘোষণা কেন্দ্রের

সকল দাবী দাওয়ার পর অবশেষে সবুজ সংকেত মিলেছে ভারতীয় রেলের তরফ থেকে। মে মাসের প্রথম দিন থেকেই বিশেষ ট্রেন চালানো শুরু করে দিলো ভারতীয় রেল।

নিজস্ব প্রতিবেদন : ভিনরাজ্যে আটকে পড়া বাসিন্দাদের ফেরাতে বেশ কয়েকদিন ধরে দাবি তুলছিল দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্য। এরপর গত ২৯ এপ্রিল এই সকল নাগরিকদের রাজ্যে ফেরার অনুমতি দেয় কেন্দ্র। তবে ফেরার অনুমতি দিলেও তৈরি হয় সংশয়, কিভাবে ঐসকল বাসিন্দারা নিজেদের বাড়ি ফিরবেন তা নিয়ে। নতুন করে দাবি ওঠে বিশেষ ট্রেনের বন্দোবস্ত করার।

রাজ্যের বাসিন্দাদের রাজ্যে ফিরিয়ে নিয়ে আসার ক্ষেত্রে বিশেষ ট্রেনের দাবি শুধু ২৯ তারিখের পরে নয়, এর আগেও দাবি তুলতে দেখা গিয়েছে মহারাষ্ট্র সহ অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের। আর এই সকল দাবী দাওয়ার পর অবশেষে সবুজ সংকেত মিলেছে ভারতীয় রেলের তরফ থেকে। মে মাসের প্রথম দিন থেকেই বিশেষ ট্রেন চালানো শুরু করে দিলো ভারতীয় রেল। লকডাউন চলাকালীন কোনো রাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিক, পড়ুয়া, পর্যটক ও অন্যান্যদের রাজ্যে ফিরিয়ে আনা হবে বিশেষ ট্রেনের মাধ্যমে। ‘পয়েন্ট টু পয়েন্ট’ একাধিক ট্রেন চালিয়ে এই বন্দোবস্ত করবে ভারতীয় রেল বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের যুগ্মসচিব পুন্যসলীলা শ্রীবাস্তব।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের যুগ্মসচিব পুন্যসলীলা শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, বিশেষ এই ট্রেনগুলি কবে কোথায় থেকে ছাড়বে, কোথায় থামবে, কোন কোন নাগরিক এই ট্রেনের মাধ্যমে ফিরতে পারবেন তা ঠিক করবে ভারতীয় রেল ও প্রতিটি রাজ্যের একজন নোডাল অফিসার। তাদের আলোচনার মাধ্যমে পুরো বিষয়টি পরিচালনা হবে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশে লকডাউন জারি হওয়ার ফলে অজস্র শ্রমিক যারা ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়েছিলেন, অজস্র পড়ুয়ারা যারা অন্য রাজ্যে পড়াশোনার জন্য গিয়েছিলেন অথবা বহু মানুষ যারা চিকিৎসার জন্য বা ঘুরতে ভিনরাজ্যে গিয়েছিলেন তারা আটকে পড়েন। আর এই সকল মানুষদের মধ্যে সবথেকে বেশি দুর্দশার মধ্যে দিন কাটাতে হয় শ্রমিক সম্প্রদায়কে। লকডাউনের কারণে তাদের কাজকর্ম বন্ধ হয়ে যায়, রোজগার হারিয়ে আধপেটা অথবা না খেয়ে দিনযাপন করতে হয় তাদের। এমত অবস্থায় দেশের বহু শ্রমিককে দেখা গিয়েছে ঘরমুখী হতে। এমনকি দেখা গিয়েছিল লকডাউনের নিষেধাজ্ঞাকে ভাঙতে। তবে বর্তমানে কেন্দ্র সরকারের পরপর দু’টি ঘোষণায় তাদের মধ্যে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরেছে।

কেন্দ্রের তরফ থেকে ভিন রাজ্যে আটকে পড়া নাগরিকদের রাজ্যের ফিরিয়ে আনার জন্য বিশেষ ট্রেনের বন্দোবস্ত করা হলেও বেশ কতকগুলি নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর এই ট্রেনগুলিতে আসার জন্য কিভাবে টিকিট কাটতে হবে, কখন ট্রেন ছাড়বে, কোথায় থেকে ছাড়বে, কোন রাজ্যে যাবে তা সম্পর্কে আগামীদিনে পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে।

ট্রেনে যাতায়াতের ক্ষেত্রে যে সকল নির্দেশিকা পালন করা আবশ্যিক

১) যে রাজ্য থেকে যাত্রীরা ট্রেনে চাপবেন সেই রাজ্যে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে হবে। কোন ব্যক্তির মধ্যে কোন রকম উপসর্গ দেখা দিলে তিনি ট্রেনে চাপবে পারবেন না।

২) স্টেশনে আসার জন্য সংশ্লিষ্ট রাজ্যকে নির্দিষ্ট বাসে করে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্টেশনে পৌঁছে দিতে হবে। যাত্রীদের বাসে চাপানোর আগে ও পরে স্যানিটাইজ করা বাধ্যতামূলক।

৩) বাড়ি থেকে বের হওয়া থেকে শুরু করে যাত্রাকালীন মাস্ক অথবা নাক, মুখ ঢেকে রাখা বাধ্যতামূলক।

৪) সংশ্লিষ্ট রাজ্যকে স্টেশন পর্যন্ত যাত্রীদের জন্য জল ও খাবারের বন্দোবস্ত করে দিতে হবে।

৫) গন্তব্যের রাজ্যে পৌঁছানোর পর ওই যাত্রীর সমস্ত রকম দায়িত্ব বহন করতে হবে সংশ্লিষ্ট রাজ্যকে। ভারতীয় রেলের দায়িত্ব কেবল মাত্র এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় ব্যক্তিকে পৌঁছে দেওয়া।