Liquor Selling Monitoring: মদ কিনে ফাঁকি দেওয়ার উপায় নেই! সঙ্গে সঙ্গে জেনে যাবে সরকার

Prosun Kanti Das

Updated on:

Liquor Selling Monitoring will be done by the state government: দোকান কিংবা বার যেখান থেকেই মদ কেনা হোক না কেন যাবতীয় খুঁটিনাটি জানতে পারবে রাজ্যের আবগারি দফতর। এর অর্থ হল আপনি মত কিনলে সরাসরি তার বিস্তারিত তথ্য (Liquor Selling Monitoring)চলে যাবে রাজ্য সরকারের কাছে। সেই কারণেই মদের দোকানে বসানো হচ্ছে ই-পশ মেশিন এবং এর মাধ্যমে একেবারে রিয়েল টাইম ডেটা চলে আসবে আবগারি দফতরের হাতে।

ধরুন বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মদের চাহিদা কেমন হচ্ছে, উৎসবের সময় কতটা পরিমাণে মদ বিক্রি হচ্ছে, বিশ্বকাপের ফাইনালের দিন মানুষ কতটা লাইন দিয়ে মদ কিনছে এইসব গুরুত্বপূর্ণ তথ্যও সরাসরি চলে যাবে আবগারি দফতরের কাছে। নতুন এই সিস্টেমের ফলে সুবিধাই হবে রাজ্য সরকারের। পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু মদের দোকানে এই সংক্রান্ত ইপশ ব্যবস্থা এরমধ্যেই চালু করা হয়েছে। কিন্তু এবার গোটা রাজ্যের সমস্ত মদের দোকানে চালু করা হবে এই ইপশ সিস্টেম। নতুন এই ব্যবস্থা চালু হলে রাজ্যের সমস্ত মদের দোকানের মদ বিক্রির যাবতীয় তথ্য (Liquor Selling Monitoring) সঙ্গে সঙ্গে জানতে পারবে রাজ্য সরকার। কোন জায়গাতেই লুকোচুরির কোন অবকাশ থাকবে না।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, এই ইপশ সিস্টেম আবগারি দফতরের তালিকায় যে সমস্ত ভেন্ডররা আছে তাদের কাছ থেকেই কিনতে হবে। এরপর প্রত্যেক লাইসেন্সপ্রাপ্ত মদ বিক্রেতাদের লগ ইন আইডি ও পাসওয়ার্ড (Liquor Selling Monitoring) দিয়ে দেবে আবগারি দফতর। এর ফলে কোন দোকানদার কিংবা বার মালিক আর চুরি করতে পারবে না মদ কেনা-বেচা থেকে।

এখন সবথেকে বড় প্রশ্ন হলো কীভাবে কাজ করবে এই ইপশ ব্যবস্থা? মলে গিয়ে আমরা অনেকেই কেনাকাটা করি এবং সেখানকার বিলিং করার সিস্টেম সম্পর্কেও জানি। ঠিক সেভাবেই মদ বিক্রির সময় ক্যাশ কাউন্টারের হ্যান্ডগান দিয়ে বার কোডের উপর ধরা হবে। ঠিক সেই সময় সমস্ত তথ্য কম্পিউটারে দেখা যাবে। আর সেই তথ্য জানতে পারবে রাজ্যের আবগারি দফতর। যদি কোন ভাবে লুকিয়ে চুরিয়ে মদ বিক্রি করা হয়নি সেই সম্পর্কে জানতে পারবে রাজ্য সরকার (Liquor Selling Monitoring)।

নতুন এই ব্যবস্থার ফলে আখেরে লাভ হচ্ছে রাজ্য সরকারের। মদ ব্যবসায়ীরা কোনভাবেই রাজ্য সরকারকে রাজস্ব ফাঁকি দিতে পারবে না। সঠিক দামেই মদ বিক্রি হবে বিভিন্ন মদের দোকানগুলোতে। কোথায় কত পরিমান মদ বিক্রি হচ্ছে সেই সম্পর্কে ও রাজ্য সরকার সঠিক তথ্য পাবে। এর মাধ্যমে সরকারের আবগারি সংক্রান্ত পলিসি তৈরিতেও সুবিধা হবে।