বিশ্বকাপ ফাইনালের আগেই বড় ঝটকা টিম ইন্ডিয়ায়! মার্শের ভবিষ্যদ্বাণী ধরাচ্ছে ভয়

Shyamali Das

Published on:

নিজস্ব প্রতিবেদন : আর মাত্র কয়েক ঘন্টা, তারপরেই এবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপের (Cricket World Cup 2023) ফাইনালে মুখোমুখি হবে টিম ইন্ডিয়া এবং অজিরা (India vs Australia)। এই দুই দেশ একে অপরের বিরুদ্ধে মুখোমুখি হওয়ার আগে এখন ক্রিকেট অনুরাগীরা পরিসংখ্যান খুঁজতে ব্যস্ত। আগে বিশ্বকাপে কতবার দুই দল একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে? কারা কতবার জয় হাসিল করেছে এসব খুঁজে বের করতে ব্যস্ত ক্রিকেটপ্রেমীরা। তবে এসবের মধ্যেই এবার মার্শ (Mitchell Marsh’s Prediction) এমন এক ভবিষ্যদ্বাণী করে দিলেন, যা রীতিমতো ভয়ে ফেলছে ভারতীয়দের।

মিচেল মার্শ এবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপ নিয়ে সে সকল ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন তার অনেকটাই মিলে গিয়েছে। তিনি ভবিষ্যদ্বাণী শুরু করেন এবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগেই। এবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগেই তিনি ভবিষ্যৎবাণী করে জানিয়েছিলেন, ২০২৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে মুখোমুখি হবে যে দুটি দল সেই দুটি দল হল টিম ইন্ডিয়া এবং অস্ট্রেলিয়া। মার্শের এই ভবিষ্যৎবাণী হুবহু মিলে গিয়েছে।

মার্শের এই ভবিষ্যৎবাণী মিলে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে তার আরও একটি ভবিষ্যৎবাণী এখন ভাবাচ্ছে ভারতীয়দের। কেননা ঐ ভবিষ্যৎবাণী কোনোভাবেই ভারতীয়দের পক্ষে নয়, সবটাই বিপক্ষে। মিচেল মার্শ ক্রিকেট বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগে যেমন ভবিষ্যৎবাণী করে জানিয়ে দিয়েছিলেন ফাইনালে মুখোমুখি হবে টিম ইন্ডিয়া এবং অস্ট্রেলিয়া, ঠিক সেই রকমই তিনি এটাও ভবিষ্যৎবাণী করে দিয়েছেন যে ফাইনালের ওই ম্যাচে কে কত রান করবে এবং কে জয় লাভ করবে।

মিচেল মার্শের ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী ২০২৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপে গো হারা হারবে টিম ইন্ডিয়া। তার ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী ফাইনালে প্রথমে ব্যাট করবে অস্ট্রেলিয়া এবং ২ উইকেটের বিনিময়ে ৪৫০ রান তুলবে। টিম ইন্ডিয়া অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এত বড় রান তারা করতে নেমে মাত্র ৬৫ রানে গুটিয়ে যাবে। স্বাভাবিকভাবেই মিচেল মার্শের এই ভবিষ্যৎবাণী এখন ভাবাচ্ছে টিম ইন্ডিয়ার সমর্থকদের।

তবে এখন প্রশ্ন হল মিচেল মার্শের সব ভবিষ্যৎবাণী কি মিলে গিয়েছে? উত্তর অবশ্যই ‘না’। কেননা তিনি তার ভবিষ্যৎবাণীতে জানিয়েছিলেন, অস্ট্রেলিয়া সব ম্যাচ জিতবে। কিন্তু এই ভবিষ্যৎবাণী ঠিক হয়নি। উপরন্তু ভারত এখনো পর্যন্ত সব ম্যাচ জিতে রয়েছে। ভারতের কাছে অস্ট্রেলিয়া পরাজিত হয় এবং প্রথম দুটি ম্যাচে পরাজিত হওয়ার পর ঘুরে দাঁড়াই ও পরপর আটটি ম্যাচে জয়লাভ করে।