রাজনৈতিক সভায় ফাটা কেষ্টর ভূমিকায় মিঠুন, নিলেন ছাত্রীর পড়াশোনার দায়িত্ব

ভিক্টর : সামনের বছর শুরুর দিকেই পঞ্চায়েত ভোট হবে রাজ্যে তা একপ্রকার নিশ্চিত। পঞ্চায়েত ভোটের এই নিশ্চয়তার দিকে তাকিয়ে ইতিমধ্যেই বিজেপি, তৃণমূল সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি প্রচারে নেমে পড়েছে পঞ্চায়েত দখল করতে। রাজ্যে এবার পঞ্চায়েত ভোটের আগে বিজেপি তুরূপের তাস হিসাবে অভিনেতা তথা রাজনীতিক মিঠুন চক্রবর্তীকে ময়দানে নামিয়েছে।

সেইমত রবিবার বীরভূমের মল্লারপুর এ বিজেপির একটি জনসভায় মূল আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু ছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী। এই সভাতেই তাকে একেবারে ফাটাকেষ্ট ভূমিকায় দেখা গেল। মঞ্চে বক্তব্য রাখার সময় মল্লারপুরের এক পড়ুয়ার কিছু না পাওয়ার অভিযোগ শুনেই তার পাশে দাঁড়ালেন অভিনেতা।

মল্লারপুরের আম্বা মোড়ের ওই পড়ুয়া নবনীতা সরকার মল্লারপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের একজন ছাত্রী। তিনি মিঠুন চক্রবর্তীকে সামনে পেয়ে জানান, তিনি একজন সাধারণ শ্রেণীর পড়ুয়া এবং এতদিন ধরে পড়াশোনা করছেন কিন্তু কিছু পাচ্ছেন না?

এই কথা শুনেই মিঠুন চক্রবর্তীর ওই পড়ুয়াকে জিজ্ঞেস করেন, কত টাকা খরচ তোমার পড়াশুনার জন্য? পড়াশোনা, স্কুলের মাইনে ইত্যাদির জন্য? এই প্রশ্নের পরিপ্রেক্ষিতে ওই পড়ুয়া জানান, তার মাসে ২০০০ টাকা খরচ হয়। খরচের কথা শুনেই মিঠুন চক্রবর্তীর মঞ্চ থেকে আশ্বাস দেন, তার এই বছরের পড়াশোনার খরচ মন্ডলরা দেবেন এবং কোথায় থেকে তা দেবেন তার ব্যবস্থা তিনি করে দেবেন।

মিঠুন চক্রবর্তীকে রাজনৈতিক সভায় অংশগ্রহণ করতে এসে এইভাবে এমন ফাটা কেষ্টর ভূমিকায় দেখা যাবে তা হয়তো কেউ ভেবে উঠতে পারেননি। তবে তাই করে দেখালেন তিনি। মিঠুন চক্রবর্তীর এদিন এইভাবে পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা করার সঙ্গে সঙ্গে উপস্থিত মানুষদের মধ্যে উচ্ছ্বাস দেখা যায় আর ওই ছাত্রীর মুখে ফুটে ওঠে হাসি।