করোনা যুদ্ধে আশার আলো দেখছে বাংলা, সুস্থ হওয়ার পথে একাধিক রোগী

প্রতীকী ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদনে : বিশ্বের পাশাপাশি ভারতেও করোনা রোগে সংক্রমিত রোগীদের সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে। বাদ পড়েনি পশ্চিমবঙ্গও। গত তিন দিনে এরাজ্যে সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা ১০ থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯-এ।

রাজ্যে নতুন করে করােনা আক্রান্ত এক চিকিৎসক। আলিপুরের কম্যান্ড হাসপাতালের অ্যানাস্থেশিওলজিস্ট তিনি। এই বিভাগের চিকিৎসকরা রােগীর খুব কাছাকাছি যান। মনে করা হচ্ছে, করােনা আক্রান্তের কোনও রােগীর হাঁচি বা কাশির ড্রপলেট শ্বাসনালীতে ঢুকে গিয়ে সংক্রামিত হয়েছেন তিনি। তবে এরই মাঝে আশার আলো এটাই যে, যে সকল ব্যক্তিরা এই করোনা ভাইরাসে সংক্রামিত হয়েছিলেন তাদের মধ্যে তিনজন সুস্থ হওয়ার পথে।

নাইসেড সূত্রে জানা গিয়েছে, বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি থাকা করোনা সংক্রমিত ব্যক্তিদের মধ্যে তিনজনের রিপোর্ট রবিবার নেগেটিভ পাওয়া গেছে। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অপেক্ষা করছেন দ্বিতীয় রিপোর্টের জন্য। দ্বিতীয় রিপোর্টটিও যদি নেগেটিভ আসে তাহলে ওই তিন ব্যক্তিকে করোনা মুক্ত ঘোষণা করা হবে। তবে স্বাস্থ্য দপ্তরের নির্দেশিকা অনুযায়ী ওই তিন ব্যক্তি করোনা মুক্ত হলেও তাদের ১৪ দিনের জন্য হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকা যে তিনজনের শরীরে করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে তাদের মধ্যে রয়েছেন লন্ডন ফেরত আমলা পুত্র, হাবড়ার স্কটল্যান্ড ফেরত তরুণী এবং বালিগঞ্জের লন্ডন ফেরত যুবকের বাবা। তবে বালিগঞ্জের ওই লন্ডন ফেরত যুবকের বাবার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও এখনো পর্যন্ত ওই যুবক ও তার মায়ের রিপোর্ট পজিটিভ রয়েছে।

তবে সে যাই হোক রাজ্যে যখন করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮, যখন মৃত্যু হয়েছে একজনের, ঠিক সেসময় তিনজন করোনা মুক্ত হওয়ার পথে থাকার খবরে স্বস্তি দিচ্ছে বাংলার বাসিন্দাদের।