হবে হবে করেও হচ্ছে না! কবে চালু হবে বাংলার চতুর্থ বন্দে ভারত! ভাড়া, রুট কি!

Shyamali Das

Published on:

নিজস্ব প্রতিবেদন : প্রতিদিন দেশের প্রায় ৮০০০ রেলস্টেশন থেকে ১২ হাজার যাত্রীবাহী ট্রেন (Train) বিভিন্ন রুটে যাতায়াত করে থাকে। এই সকল ট্রেনগুলির উপর নির্ভর করে প্রতিদিন দেশের প্রায় এক কোটি মানুষ নিজেদের গন্তব্যে পৌঁছান। এমন নির্ভরশীলতার কারণেই ভারতীয় রেল (Indian Railways) আজ ভারতীয় নাগরিকদের কাছে গণপরিবহনের লাইফ লাইন হয়ে দাঁড়িয়েছে। রেলের তরফ থেকেও এমন নির্ভরশীলতার দিকে তাকিয়ে প্রতিনিয়ত উন্নত পরিষেবা দেওয়ার প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।

উন্নত পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে ভারতীয় রেলের যে সকল প্রচেষ্টা রয়েছে সেই প্রচেষ্টার অন্যতম ফসল হল বন্দে ভারত এক্সপ্রেস (Vande Bharat Express)। দেশীয় প্রযুক্তির প্রথম এই প্রিমিয়াম ট্রেনটি এখন ভারতীয়দের কাছে স্বপ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে দেশের ২৫ টির রুটে ৫০টি বন্দে ভারত যাতায়াত করছে। যার মধ্যে আবার তিনটি পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিভিন্ন রুটে চলছে। এরই মধ্যে গত কয়েক মাস ধরেই শোনা যাচ্ছে, চতুর্থ বন্দে ভারত চালু হবে।

পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া থেকে চতুর্থ বন্দে ভারত চালানোর জন্য ইতিমধ্যেই ট্রায়াল রান হয়েও গিয়েছে। কিন্তু এরপরেও চালু হবে হবে করেও হচ্ছে না! এই পরিস্থিতিতে মোটামুটি একটি আপডেট থেকে জানা গেল চতুর্থ এই বন্দে ভারতটি কবে চালু হতে পারে। সূত্র মারফত যা জানা যাচ্ছে তাতে পুজোর আগে বাংলার চতুর্থ বন্দে ভারত চালু হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই ক্ষীণ। পুজোর পরই চতুর্থ বন্দে ভারত পাবে পশ্চিমবঙ্গ এমনই খবর।

বাংলার চতুর্থ বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিহারের পাটনা থেকে হাওড়া পর্যন্ত যাতায়াত করবে। এই ট্রেন চালু করার জন্য ইতিমধ্যেই আগস্ট মাসের ৫ এবং ১২ তারিখ দুটি ট্রায়াল রান হয়েছে। সেই ট্রায়াল রান সফল বলেও জানা যাচ্ছে। তবে তার পরেও কেন এই ট্রেনটি এখনো চালু করা হলো না তা সম্পর্কে জানা যায়নি। শুধু এটুকুই জানা যাচ্ছে, খুব তাড়াতাড়ি এই রুটে বন্দে ভারত চালু হবে।

পাটনা থেকে হাওড়া বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেনটি মোট ৫৩৫ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করবে। এক্ষেত্রে প্রায় সাড়ে ৬ ঘন্টা সময় লাগবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এই ট্রেনটি ঘন্টায় ৯০ থেকে ১১০ কিলোমিটার গতিবেগে ছুটতে পারে। তবে এখনো এর ভাড়া সম্পর্কে রেলের তরফ থেকে কিছু জানানো হয়নি। রেলে তরফ থেকে কিছু জানানো না হলেও অন্যান্য রুটের ভাড়ার সঙ্গে তুলনা করলে মনে করা হচ্ছে এসি এক্সিকিউটিভ চেয়ার কারের জন্য ভাড়া নেওয়া হতে পারে ২৬৫০ টাকা এবং এসি চেয়ার কারের জন্য ভাড়া হতে পারে ১৪৫০ টাকা। টিকিটের সঙ্গেই খাবারের দাম ধরা থাকবে।