‘মিষ্টি কিনতে যাচ্ছি’, কার্যত লকডাউনের ভরদুপুরে গলায় কার্ড ঝুলিয়ে যুবক

নিজস্ব প্রতিবেদন : বাঙালি মানেই মাছ ভাত, আর শেষ পাতে মিষ্টি। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে রাজ্যজুড়ে জারি হওয়া কার্যত লকডাউনের ভরদুপুরে এবার এই মিষ্টি নিয়েই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে পড়ল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

রাজ্য সরকারের তরফ থেকে সংক্রমণ ঠেকাতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে গণপরিবহন, দোকানপাট খোলা রাখার ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। আর এই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে মিষ্টির দোকান খোলা রাখার জন্য যে সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে তা হলো সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত। রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের কিছুটা হলেও হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন বাঙালিরা। তবে তাহলেও মিষ্টি কিনতে যাওয়ার জন্য এমন অদ্ভুত পদক্ষেপ যে কেউ নিতে পারেন তা হয়তো এই ভিডিও না দেখলে কারোর বিশ্বাস হবে না।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, নাদুস নুদুস চেহারার এক যুবক হলুদ টি-শার্ট আর থ্রি-কোয়ার্টার প্যান্ট পরে লকডাউনের ভরদুপুরে এগিয়ে আসছেন। আর সেই সময় তার সামনে পুলিশ থাকলেও কোনো হেলদোল নেই। জনমানব শূন্য রাস্তায় দুলকি চালে পুলিশের কাছাকাছি যেতেই পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসা করেন, কোথায় যাচ্ছেন? কেন যাচ্ছেন? আর এর পরেই বেরিয়ে আসে আসল রহস্য।

পুলিশের সেই প্রশ্নবানে হঠাৎই ওই যুবক পিছন থেকে একটি কার্ড (যেটি তার গলায় ঝুলানো ছিল) ঘুরিয়ে পুলিশকে দেখান। তবে ওই কার্ড দেখেই কর্তব্যরত পুলিশ অফিসার চরম ক্ষেপে যান। ওই পুলিশ অফিসার ওই কার্ড দেখে এতটাই ক্ষিপ্ত হয়ে যান যে রেগে কি বলছেন তাও স্পষ্ট বোঝা যায়নি। আসলে ওই পুলিশ অফিসারের এইভাবে রেগে যাওয়ার কারণ হলো, ওই কার্ডে বড় বড় হরফে লেখা ছিল ‘মিষ্টি কিনতে যাচ্ছি’। আর এটা দেখেই চটে যান পুলিশ অফিসার।

আরও পড়ুন :

সেই মুহূর্তের ঘটনা ক্যামেরাবন্দি হওয়ার পর তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সোশ্যাল নাগরিকদের থেকে জানা যাচ্ছে, এই অদ্ভুত ঘটনাটি হল চন্দননগর স্ট্র্যান্ড এলাকার। আর এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই ভিডিওটি নিয়ে বেশ মজেছেন সোশ্যাল নাগরিকরা।