BJP Plan B: ‘প্ল্যান এ’ সফল না হলেই রেডি ‘প্ল্যান বি’! তৃতীয়বার সরকারে আসতে কী কী পরিকল্পনা অমিত শাহের

Shyamali Das

Published on:

নিজস্ব প্রতিবেদন : দেশের সরকার গঠন কে করবে? বিজেপি জোট এনডিএ নাকি বিরোধী জোট ইন্ডিয়া? এখন এই প্রশ্ন লাখ টাকার প্রশ্ন। তবে অধিকাংশ সমীক্ষা এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা তৃতীয় বার বিজেপির সরকার গঠন নিয়ে কোন সংশয় প্রকাশ করছেন না। আবার বিজেপি এবার ৪০০ আসন পার করার লক্ষ্যমাত্রায় নেমেছে। যদিও সেই লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হচ্ছে কিনা তা দেখতে চোখ রাখতে হবে, ৪ জুন ফলাফলের দিন।

কেন্দ্র সরকার গঠন করার জন্য কমকরে ২৭২টি আসন দরকার সংখ্যাগরিষ্ঠ প্রমাণ করতে। এক্ষেত্রে বিজেপি এবার ৪০০ আসনের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে নামলেও সরকার গঠনের জন্য তারা প্ল্যান বি (BJP Plan B) রেডি করে রেখেছে এমনটাই জানিয়েছেন খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ৪০০ আসনের লক্ষ্যমাত্রা হলো প্ল্যান এ, কিন্তু তাতে যদি সফলতা না আসে অর্থাৎ ২৭২ আসন না আসে তাহলে সরকার গঠনের জন্য তাদের কাছে রেডি রয়েছে প্ল্যান বি।

সংবাদ সংস্থা এনআইকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে এমনই নানান প্ল্যান সামনে এনেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠছে বিজেপির প্ল্যান বি তাহলে কি? কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সংবাদ সংস্থা এএনআইকে যাওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, তিনি এই রকম কোনো সম্ভাবনা দেখছেন না যে বিজেপি ২৭২ আসন পার করতে পারবে না। সুতরাং প্ল্যান বি তখনই প্রয়োগ করার প্রয়োজন আসে যখন প্ল্যান এ সফল হওয়ার ক্ষেত্রে ৬০ শতাংশের কম সম্ভাবনা থেকে যায়।

আরও পড়ুন 👉 BJP Seats Prediction: প্রশান্ত কিশোর নন, এবার আরেক ভোটকুশলী জানালেন, কত সিট পাবে বিজেপি

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন, এবারও বিপুল সংখ্যা গরিষ্ঠতায় দেশের মানুষ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সমর্থন করবেন এবং বিজেপি সমর্থিত এনডিএ পুনরায় সরকার গঠন করবে। তাদের পুনরায় সরকার গঠন করার পিছনে কি কি কারণ রয়েছে সেগুলিও তিনি তুলে ধরেছেন। আর অমিত শাহের দাবি অনুযায়ী প্ল্যান এ যেখানে সফল সেখানে প্ল্যান বি প্রয়োগ করার কোন প্রয়োজনই হয় না।

অমিত শাহ জানিয়েছেন, দেশের মানুষদের যেভাবে একের পর এক সুবিধা তুলে দেওয়া হয়েছে তা আগের কোন সরকার করতে পারেনি। গত ১০ বছরে ৪ কোটির বেশি মানুষ পেয়েছেন মাথা গোজার ঠাঁই, ভোট শেষ হওয়ার পর আরও ৩ কোটি মানুষ এই তালিকায় যোগ দেবেন। এছাড়াও কৃষকদের সরাসরি আর্থিক সাহায্য, বাড়িতে বাড়িতে বিনামূল্যে রান্নার গ্যাস কানেকশন, রেলের ব্যাপক উন্নতি, চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নতি সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে যেভাবে উন্নতি করা হয়েছে তাতে ৬০ কোটির বেশি উপভোক্তা জানেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কেন দরকার। আর তাই তিনি কোনভাবেই ২৭২ এর কম আসন পাওয়ার সম্ভাবনা দেখতেই পাচ্ছেন না।