PM Kisan KYC: আজই শেষ দিন, এই কাজ না করলে ফসকে যেতে পারে এই সরকারি প্রকল্পের ২০০০ টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদন : দেশের সাধারণ নাগরিকদের সুযোগ-সুবিধার জন্য কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন প্রকল্প (Government Scheme) চালু করা হয়েছে। যে সকল প্রকল্পের মধ্যে এমন কিছু প্রকল্প রয়েছে যেগুলি সরাসরি দেশের নাগরিকদের আর্থিক সাহায্য প্রদান করে থাকে। আবার বেশ কিছু প্রকল্প রয়েছে যেগুলি সরাসরি টাকা না দিলেও বাড়িঘর থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য ইত্যাদি সব বিষয়ে খেয়াল রাখে।

কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে চালু করা এই সকল প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য সরকারের তরফ থেকে বিভিন্ন সময় নিয়মে পরিবর্তন আনা হয়। সরকারের তরফ থেকে জারি করে দেওয়া সেই নিয়ম মেনেই উপভোক্তাদের পরবর্তী কাজ করতে হয়, আর তা না করা হলেই ফস্কে যেতে পারে সরকারি ওই সকল প্রকল্পের টাকা বা সুবিধা।

ঠিক সেই রকমই একটি সরকারি প্রকল্পের ছোট্ট একটি কাজের জন্য শেষ সময়সীমা ৩১ মার্চ ২০২৪। অর্থাৎ আজই ওই কাজটি সেরে ফেলতে হবে। যদি ওই কাজ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে না করা হয় তাহলে প্রকল্পের টাকা ফসকে যেতে পারে। যে প্রকল্পটির কথা বলা হচ্ছে সেই প্রকল্পটি হলো প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি যোজনা (PM Kisan)। এই প্রকল্পের আওতায় দেশের কৃষকদের বছরে ৬ হাজার টাকা দেওয়া হয়। তিন কিস্তিতে ২ হাজার টাকা করে দিয়ে থাকে কেন্দ্র সরকার।

আরও পড়ুন 👉 PM Shri School: বদলে যাবে পঠন-পাঠন পদ্ধতি, চালু হবে পিএমশ্রী স্কুল! পরিকাঠামো দেখে লজ্জা পাবে হাজার হাজার প্রাইভেট স্কুল

ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্পের আওতায় দেশের কোটি কোটি চাষিরা বছরে ৬ হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য পাচ্ছেন। কিন্তু এই টাকা আটকে যেতে পারে যদি ৩১ মার্চ ২০২৪ এর মধ্যে কেওয়াইসি (PM Kisan KYC) করা না হয়। যদি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কেওয়াইসি না করা হয় তাহলে এই প্রকল্পের ১৭তম কিস্তি আটকে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আর যদি একবার টাকা আটকে যায় তাহলে পরবর্তীতে টাকা পাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে। আর এমনটা হলে বছরে ৬ হাজার টাকা ক্ষতি হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি যোজনা অ্যাকাউন্টের কেওয়াইসি অনায়াসেই করা যেতে পারে PM Kisan মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে। বাড়িতে বসেই এই ছোট্ট কাজটি করে নিতে পারবেন উপভোক্তারা। নিজেদের স্মার্টফোনে ওই অ্যাপ ডাউনলোড করে অনলাইনেই ই-কেওয়াইসির কাজ করে নেওয়া যেতে পারে। এই পদ্ধতিতে ই-কেওয়াইসি করার জন্য উপভোক্তাদের আধার ডিটেলস, ফেস অথেন্টিকেশন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে এগোতে হবে। অন্যদিকে যদি কারো এই প্রক্রিয়া কঠিন মনে হয় তাহলে তিনি নিকটবর্তী সিএসসি সেন্টারে গিয়ে কেওয়াইসি আপডেট করিয়ে নিতে পারবেন।