LIC: মেয়াদ শেষে মিলবে ২৫ লক্ষ টাকা, প্রতি মাসে জমাতে হবে এত, বড় সুযোগ দিচ্ছে এলআইসি

নিজস্ব প্রতিবেদন : দেশের প্রতিটি বিনিয়োগকারী চান যাতে তাদের বিনিয়োগ অল্প সময়ের মধ্যেই কয়েকগুণ বৃদ্ধি পায়। যে কারণেই বিনিয়োগকারীরা কোথায় বেশি সুদ দিচ্ছে তার সন্ধানে থাকেন। এমন পরিস্থিতিতে এবার লাইফ ইন্সুরেন্স কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া (LIC) এমন একটি প্ল্যান নিয়ে এলো, যার মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা মেয়াদ শেষে পাবেন ২৫ লক্ষ টাকা।

এলআইসি এমন একটি সংস্থা যার উপর দেশের কোটি কোটি মানুষের অগাধ বিশ্বাস রয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হওয়ার পাশাপাশি এলআইসি কয়েক দশক ধরে দেশের মানুষদের নিরবিচ্ছিন্ন পরিষেবা দিয়ে আসছে। এবার এই সংস্থা এমন একটি প্ল্যান আনল যার মাধ্যমে প্রতিমাসে মাত্র কয়েক’শ টাকা জমা করেই মেয়াদ শেষে ২৫ লক্ষ টাকা পাওয়া যাবে।

সংস্থার তরফ থেকে নতুন যে পলিসি আনা হয়েছে তার নাম হলো জীবন আনন্দ (Jeevan Anand)। সাধারণত অবসর গ্রহণের পর যাতে ভবিষ্যৎ নিয়ে কোন চিন্তা না করতে হয় তার জন্য এই পলিসি আনা হয়েছে। এর লক ইন পিরিয়ড বেশি অর্থাৎ দীর্ঘসময় পর এই পলিসিতে টাকা রিটার্ন হিসাবে পাওয়া যায়। দীর্ঘ সময় পর রিটার্ন পাওয়ার কারণে রিটার্নের পরিমাণও অনেক বেশি হয়। রিটার্নের পরিমাণ বেশি থাকার পাশাপাশি এই পলিসিতে বিনিয়োগকারীর মৃত্যু হলে তার নমিনি ১২৫% পর্যন্ত রিটার্ন পেয়ে থাকেন।

আরও পড়ুন 👉 Village Police Salary: হাজার টাকা বৃদ্ধির পর এখন প্রতিমাসে কত পাবে ভিলেজ পুলিশরা! দেখে নিন হিসেব-নিকেশ

জীবন আনন্দ পলিসির ন্যূনতম সাব অ্যাসিওর্ড এক লক্ষ টাকা। তবে এর ঊর্ধ্ব কোন সীমা নেই। এই পলিসির আওতায় বিনিয়োগকারীরা মেয়াদ শেষে ২৫ লক্ষ টাকা পেতে পারেন। ২৫ লক্ষ টাকা পাওয়ার জন্য বিনিয়োগকারীকে প্রতি মাসে ১৩৫৮ টাকা করে জমা করতে হবে। যদি প্রতিদিনের হিসাব করা হয় তাহলে প্রতিদিন জমা করতে হবে মাত্র ৪৫ টাকা। এইভাবে জমা করলে বছরে জমার পরিমাণ হয় ১৬ হাজার ৩০০ টাকা। এক্ষেত্রে যদি বিনিয়োগকারী ৩৫ বছর পর রিটার্ন পেতে চান তাহলে তিনি ২৫ লক্ষ টাকা পাবেন।

ভালো রিটার্নের পাশাপাশি এলআইসির এই পলিসিতে আরও অনেক সুবিধা রয়েছে। সেই সকল সুবিধার মধ্যে অন্যতম হল দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যু, অক্ষমতা, মেয়াদি নিশ্চয়তা এবং গুরুতর অসুস্থতার ক্ষেত্রে কভার রয়েছে। অনলাইন অথবা অফলাইন দুইভাবেই এই পলিসি করা যেতে পারে। এই পলিসিতে প্রতি মাসে, প্রতি ছয় মাসে অথবা প্রতিবছর হিসাবে টাকা জমা করার ব্যবস্থা রয়েছে।