Habra-Digha Bus Fare: ট্রেনের ভরসার দিন শেষ! এবার বাসে চড়েই কম ভাড়ায় যাওয়া যাবে হাবড়া টু দীঘা

Antara Nag

Published on:

Go from Habra to Digha at a low fare by bus: দীর্ঘ কর্মব্যস্ত জীবন থেকে যদি দু-একদিনের ছুটি চান তাহলে কাছেপিঠে দীঘার থেকে ভালো ঘোরার জায়গা আর হতে পারে না। পরিবারের সাথে কিংবা বন্ধু-বান্ধবদের সাথে সপ্তাহের শেষে সমুদ্রের পাড়ের ফুরফুরে হাওয়া সত্যি দুর্দান্ত লাগবে। যাতায়াতের খরচ নিয়ে একদম ভাববেন না যা এক্কেবারে আপনার হাতের নাগালে। এমনকি আপনি চাইলে সকালবেলা সমস্ত কাজকর্ম গুছিয়ে দুপুরেই বেরিয়ে পড়তে পারেন সমুদ্র সৈকতের উদ্দেশ্যে। যারা উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়াবাসী তাদের জন্য কিন্তু বিশেষ সুখবর। খুব কম খরচে এবং সহজেই তারা হাবড়া থেকে পৌঁছে যেতে পারবে দীঘাতে (Habra-Digha Bus Fare)।

নিশ্চয়ই ভাবছেন কিভাবে হাবড়া থেকে সরাসরি দীঘা পৌঁছে যাবেন একেবারেই কম খরচে? হাবড়া থেকে দীঘাগামী প্রচুর বাস রয়েছে। সাধারণ বাস এবং এসি বাস দুই ধরনের বাসেরই ব্যবস্থা রয়েছে। সকালের বাসে না গিয়ে যদি চান সমস্ত কাজকর্ম মিটিয়ে একেবারে দুপুরবেলা বেরোবেন সেটাও কিন্তু এখন আপনার একেবারে হাতের মুঠোয়। বাস সার্ভিস ব্যবস্থাতে এই সুবিধা এতদিন পর্যন্ত ছিল না দীঘার পর্যটকদের জন্য। তবে এবার সম্পূর্ণ ভোল বদল হতে চলেছে এই রুটের। দীর্ঘদিন ধরেই সাধারণ মানুষের দাবি ছিল দুপুরের দিকে হাবড়া টু দীঘা বাস চালু করার, এবার সেটাই পূরণ হল। আর বাস ভাড়া নিয়ে একদম ভাববেন না, মধ্যবিত্তের সাধ্যের মধ্যেই রাখা হয়েছে এই বাসের ভাড়া (Habra-Digha Bus Fare)।

আবার দীঘা থেকে বিকেলবেলা বাস ছাড়বে যা পৌঁছবে হাবড়ায়। সপ্তাহান্তে অনেকেই চান দীঘায় গিয়ে সময় কাটাতে তাদের জন্য একেবারেই সুবর্ণ সুযোগ। দীঘা ঘুরতে যাওয়ার জন্য আর সকালের ঘুম নষ্ট করতে হবে না। সকালের দিকে যাবতীয় প্রয়োজনীয় কাজ গুছিয়ে দুপুর দুপুর সৈকতে বেরিয়ে পড়লেই হল! সপ্তাহ শেষের দুটো দিন আরামেই কেটে যাবে এই সমুদ্র সৈকতে। এবার জেনে নিতে হবে বাস ছাড়ার সঠিক সময় কখন, কোন রুট দিয়ে এই বাসটি যাতায়াত করবে এবং সর্বোপরি বাসের ভাড়া কত (Habra-Digha Bus Fare)।

দীঘায় যাবার এই বাস হাবড়া থেকে ১টায় ছাড়ার কারণে যারা দীঘা লাভার তাদের জন্য বেশ সমস্যা সৃষ্টি করেছে। বাসটি অশোকনগর কচুয়া মোড় হয়ে যাবে। হাবড়া থেকে অশোকনগর কচুয়া মোড়, দত্তপুকুর, বারাসত, বিমানবন্দর, ধুলাগড়, উলুবেড়িয়া, বাগনান, কোলাঘাট, মেচাদা, রাধামণি, নিমতৌড়ি, নন্দকুমার, চণ্ডীপুর, বাজকুল, হেনরিয়া, কাঁথি হয়ে চোউলখোলায় পৌঁছবে। এমন বহু যাত্রী আছেন যারা দীঘা যাবার থেকে মন্দারমণি যেতে বেশি পছন্দ করেন তাদের জন্য কিন্তু এইবাস একেবারে উপযুক্ত। যারা মন্দারমনির উদ্দেশ্যে রওনা হবেন তারা নেমে যাবেন চোউলখোলায়। এরপর সেখান থেকে বাসটি রামনগর যাবে।

ডব্লিউবিটিসি সূত্রে খবর পাওয়া গেছে যে, বহু আবেদন তাদের কাছে জমা পড়ে যার বিষয় ছিল দুপুরে হাবড়া থেকে দীঘার বাস পরিষেবা চালু করা। প্রধানত যাত্রীদের স্বাচ্ছন্দের কথা মাথায় রেখেই এই ব্যবস্থা করা হয়েছে। হাবড়া থেকে তা ছাড়বে দুপুর ১টা নাগাদ। বারাসত থেকে তা দীঘার উদ্দেশে রওনা দেবে ২.১৫ মিনিটে। অন্যদিকে, হাবড়া ফেরার জন্য বাসটি দীঘা বাস স্ট্যান্ড থেকে বিকেল ৪টের সময় ছাড়বে। কিন্তু যখন বাসটি হাবড়ার উদ্দেশ্যে ফিরবে তখন সেটি এসপ্ল্যানেডে হয়ে ফিরবে। এমন বহু যাত্রী আছে যাদের এসপ্ল্যানেড থেকে ফিরতে সুবিধা হয়, তাদের জন্যও এই বাস পরিষেবা চালু অত্যন্ত সুখবর হতে চলেছে। বাসের ভাড়া সত্যিই আশ্চর্য করবে আপনাকে। বাসটির ভাড়া ধার্য্য করা হয়েছে মাত্র ১৭৯ টাকা (Habra-Digha Bus Fare)। তাই মাসের শেষে যদি পকেটে টানাটানি থাকে তাহলে আর অসুবিধা হবে না দীঘা ঘুরতে যেতে।

আরও পড়ুন 👉 Digha: বর্ষা আসতেই দীঘা নিয়ে মেগা পরিকল্পনা প্রশাসনের! মিলবে বিশেষ সুবিধা, স্বাচ্ছন্দ্য

বিভিন্ন ওয়েবসাইটের লিংক, যার দ্বারা আপনি খুব সহজেই বুকিং করতে পারবেন – https://wbtconline.in/home, https://www.redbus.com/, https://www.makemytrip.com/, https://www.paytm.com/, https://www.bus.irctc.co.in/home, https://www.abhibus.com/

আপনার নিশ্চয়ই জানতে ইচ্ছা করছে এই বাসের টিকিট কিভাবে কাটবেন? অনলাইনের মাধ্যমে অনেকে আগে থেকেই এই বাসের টিকিট কেটে রাখে। আগে থেকে যদি অনলাইনের মাধ্যমে টিকিট কাটা যায় তাহলে সিট বুকিং এর ক্ষেত্রে সুবিধা পাওয়া যায়। এই বাসটিতেও আপনি পেয়ে যাবেন সেই সুবিধা। বর্তমানে বিভিন্ন রকমের অ্যাপ আছে যার দ্বারা টিকিট আগে থেকেই কাটতে পারবেন। অতিরিক্ত অর্থ যাতে কোনোভাবেই যাত্রীদের কাছ থেকে না কাটা হয় সে বিষয়েও সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে। এই পরিষেবা চালু হওয়াতে বহু দীঘা পর্যটক অত্যন্ত খুশি।