Viral News: মাসে মাসে রোজগার ৭ লক্ষ টাকা! কিভাবে করবেন খরচ? দিশেহারা দম্পতি

Prosun Kanti Das

Published on:

Viral News The couple is confused about what to do with their monthly income of 7 lakh rupees: সাম্প্রতিক সময়ে প্রতি মানুষের কাছেই সারা দুনিয়ার খবর থাকে নখ দর্পণে। যার বিশেষ মাধ্যম হলো নেটদুনিয়া বা সমাজ মাধ্যম। সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যমে মুহূর্তের মধ্যেই প্রকাশ্যে আসে পৃথিবীর নানা প্রান্তের ভালো-খারাপ, অদ্ভুত সব ঘটনা। পাশাপাশি অনেকেই নিজের প্রতিভা মেলে ধরে রোজগারের পথ খুঁজে পেয়েছেন এই নেটদুনিয়া মাধ্যমে। অনেকে সমস্যার সমাধান পেতেও নেটদুনিয়ায় পরামর্শ চায়। তেমনি আজকের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে এক তরুণ দম্পতির কথা। যারা অধিক অর্থ নিয়ে দিশেহারা। পরামর্শ চাইতে ভাইরাল (Viral News) সেই তরুণ দম্পতি। বিষয়টি কি?

বর্তমানে ইন্টারনেট পরিষেবা সাধারণ মানুষের কাছে এক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে উঠেছে। যার মাধ্যমে সাধারণ মানুষ রোজগারের পথ খুঁজে পাচ্ছেন। নিজেদের সমস্যা সমাধানেরও পথ খুঁজে পাচ্ছেন। তেমনি সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে প্রকাশিত হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ। সাধারণ মানুষকে সুবিধা প্রদান করছে তেমনি একটি অ্যাপ হল গ্রেপভাইন। যেখানে বিভিন্ন পেশার সাথে যুক্ত ব্যক্তিরা তাদের কর্মস্থল, বেতন, অর্থ বিষয়ে নানান ধরনের আলোচনা করে থাকে। আর সেই অ্যাপেই এক দম্পতি তুলে ধরেন তাদের সমস্যার কথা (Viral News)। যা এক্স স্যান্ডেলে শেয়ার করে ভাইরাল করে অ্যাপ সংস্থার সিইও এবং প্রতিষ্ঠাত্রী সৌমিলি ত্রিপাঠী। কি সমস্যা তুলে ধরেছিলেন সেই দম্পতি? তাতে নেটিজেনদের প্রতিক্রিয়াই বা কি ছিল?

খবর অনুযায়ী, এক তরুণ দম্পতি কাজের সূত্রে থাকেন বেঙ্গালুরুতে। দুজনেই অতি শিক্ষিত এবং কর্মরত। ৩০ বছর বয়সী সেই দম্পতি উভয়েই সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। সেই সূত্রেই ব্যাঙ্গালোরের একটি নামই কোম্পানিতে কাজ করেন তারা। মাসিক বেতনও রয়েছে ভালো পরিমান অঙ্কের। দুজনেরই মাসিক ইনকাম ৭ লক্ষ টাকা। কিন্তু সমস্যা হল তাদের সমস্ত আকাঙ্ক্ষা, চাহিদা সবকিছু মিটিয়েও সেই টাকার অধিক পরিমাণ জমছে ব্যাঙ্কে। যা তাদের দিশেহারা করে তুলছে। কিভাবে সেই টাকা খরচ করবেন তা ভেবে পাচ্ছেন না। তাই সমস্যার সমাধান পেতে শেষমেষ নেটদুনিয়ার দারস্থ হন সেই তরুণ ইঞ্জিনিয়ার দম্পতি। সোশ্যাল মিডিয়ায় কি লিখলেন তারা?

আরও পড়ুন 👉 Cloud Kitchen Business: ঘরে বসেই রোজ ৩০০০ টাকা রোজগারের সুযোগ! জোমাটো খুলে দিল ব্যবসার নতুন পথ

সমাজ মাধ্যমে নিজেদের সমস্যার কথা তুলে ধরে দম্পতি জানান, তাদের মাসিক আয় ৭ লক্ষ টাকা। নেই কোনো সন্তান-সন্ততি। বেঙ্গালুরুর অভিজাত এলাকায় থাকেন তারা। গাড়ি-বাড়ি সবকিছুই রয়েছে। প্রতি মাসে তাদের মাসিক খরচ হয় ১.৫ লক্ষ টাকা এবং মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করেন ২ লক্ষ টাকা। এছাড়াও অন্যান্য প্রয়োজন মিটিয়ে তাদের ব্যাঙ্কে প্রতি মাসে জমা হয় ৩ লক্ষ টাকা। যা তাদের মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠেছে। প্রতিমাসে ব্যাঙ্কে জমে যাওয়া ওই টাকার পাহাড় তারা কিভাবে খরচ করবেন তা বুঝে উঠতে পারছেন না। তাই তারা সমাজ মাধ্যমে দ্বারস্থ হয়েছেন। যা বর্তমানে নেটদুনিয়ায় প্রচুর পরিমাণে ভাইরাল হয়েছে। তবে দম্পতির এই সমস্যায় কি প্রতিক্রিয়া জানালেন নেটিজেনরা?

প্রসঙ্গত, কেউ অর্থের অভাবে অনাহারে মরছে আবার কেউ অধিক পরিমাণ অর্থ নিয়ে চিন্তিত। ফলস্বরূপ অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয়। তবে তরুন ইঞ্জিনিয়ারিং দম্পতির এই সমস্যায় (Viral News) অনেকেই নানান পরামর্শ জানিয়েছেন। কেউ কেউ লিখেছেন, বৃদ্ধাশ্রম, অনাথ আশ্রমে দান করার কথা। আবার কেউ রসিকতার সুরে বলেছেন, তার বেতন কম, তাতে যদি তা থেকে কিছু অংশ দিয়ে দেওয়া হয়। আবার কেউ পরামর্শ দিয়েছেন, বিদেশে ভালো পরিমান সম্পত্তি কিনে রাখার।