Viral Video: ৫০০ টাকায় ট্রেনে পাওয়ার ব্যাঙ্ক কিনলে যা হয় আর কি! ভিডিও দেখলে আপনিও থ হয়ে যাবেন

Antara Nag

Published on:

Viral video of buying a power bank for 500 rupees in the train: আসল কোম্পানির লোগো দিয়ে নকল জিনিস বিক্রি করার ঘটনা নতুন নয়। ইলেকট্রনিক গেজেট, জামাকাপড় বা অন্যান্য দ্রব্য সবেতেই চলছে জালিয়াতির কারবার। তবে ইলেকট্রনিক গ্যাজেটসের ক্ষেত্রে এই সম্ভাবনা একটু বেশি। আসল ব্র্যান্ডের জিনিস কিনতে গেলে অনেকটা খরচ হয়ে যায়, তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই সস্তার জিনিস খোঁজেন মধ্যবিত্তরা। আর সেখানেই চলছে কারচুপি। হেডফোন থেকে শুরু করে ফ্রিজ, টিভি, এসি, সবকিছুরই ডুপলিকেট পণ্য বাজারে সহজেই পাওয়া যায়। এবার পাওয়ার ব্যাংকেও শুরু হয়েছে জালিয়াতির কারবার। ১ টি ভিডিওতে (Viral Video) পাওয়া গেল তার প্রমাণ।

সস্তায় ইলেকট্রনিক্স কিনতে গিয়ে ঠকে যাচ্ছেন না তো! হেডফোনের মত ইলেকট্রিক জিনিস বিক্রি হতে দেখা যায় বিভিন্ন ট্রেনে বা রাস্তার ধারে। সাধারণ হকাররা হাতে নিয়ে বিক্রি করে থাকে এই সমস্ত পণ্য। এর মধ্যে বেশিরভাগটাই থাকে ডুপ্লিকেট আর কিছু সংখ্যক থাকে লোকাল পণ্য। দূরপাল্লার ট্রেনে পাওয়া যায় অনেক ধরনের ইলেকট্রনিক্স গেজেট তার মধ্যে অন্যতম হলো পাওয়ার ব্যাংক। যে দ্রব্যটির বাজার মূল্য ২ থেকে ৩ হাজার টাকা। সেই প্রোডাক্টটি মাত্র ৪০০ থেকে ৫০০ টাকায় কিনতে পাওয়া যায় ট্রেনে।

কিন্তু সেগুলি যে কোনভাবেই আসল নয়, তা বুঝতে বাকি থাকে না কারোরই। সাধারণ পাওয়ার ব্যাংকের মধ্যে ১ টি উন্নত মানের বেশি ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যাটারি থাকে। যার সাহায্যে বেশি পরিমাণ ইলেকট্রিসিটি স্টোর করে রাখা যায়। পরবর্তীতে প্রয়োজনমতো সেই ইলেকট্রিসিটি ব্যবহার করে চার্জ দেওয়া যায় অন্য কোন ফোন বা ওই জাতীয় জিনিসে। কিন্তু সস্তায় বিক্রি হওয়া পাওয়ার ব্যাংকে সেরকম কিছুই থাকে না। কি থাকে জানেন? ১ টি ভিডিওতে দেখা গেছে সস্তার পাওয়ার ব্যাংকের আসল রহস্য। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই ব্যাপক হারে ভাইরাল হচ্ছে ভিডিওটি (Viral Video)।

আরও পড়ুন 👉 Viral News: মাসে মাসে রোজগার ৭ লক্ষ টাকা! কিভাবে করবেন খরচ? দিশেহারা দম্পতি

সম্প্রতি দূরপাল্লার ট্রেনের ১ যাত্রী এরকমই একটি পাওয়ার ব্যাংকের ভিডিও (Viral Video) শেয়ার করেছেন তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে এক ব্যক্তি স্যামসাং, ওপো বিভিন্ন ব্র্যান্ডেড কোম্পানির নাম নিয়ে পাওয়ার ব্যাংক বিক্রি করছেন। সেই পাওয়ার ব্যাংকে চার্জ দিলে চার্জও হচ্ছে ফোনে। বিক্রেতা দাবি করছেন এই পাওয়ার ব্যাংকগুলি একেবারে কোম্পানির আসল পণ্য। শুধু তাই নয় এই পাওয়ার ব্যাংকগুলিতে ১ বছরের গ্যারান্টি এবং ভেঙে গেলে পরিবর্তন করে দেওয়ার কথাও জানায় সেই বিক্রেতা।

যে দ্রব্যগুলির বাজারে হাজারের উপরে দাম সেগুলি সেই বিক্রেতা ট্রেনে বসে বিক্রি করছিলেন মাত্র ৫০০ থেকে ৫৫০ এর মধ্যে। একটু দড়াদড়ি করতেই ৫০০ টাকার জিনিসটি ৩৫০ টাকায় দিতে রাজি হয়ে যান তিনি। যাত্রীটি এই পাওয়ার ব্যাংকের উপর সন্দেহ প্রকাশ করেন এবং পাওয়ার ব্যাংকটিকে বিক্রেতার সামনেই খুলে দেখেন। দেখা যায় সেখানে ১ টি সাধারণ ব্যাটারির সাথে রয়েছে ১ দলা এঁটেল মাটি। পাওয়ার ব্যাংকটি খুলে ফেলার সাথে সাথে বিক্রেতা একপ্রকার ঝাঁপিয়ে পড়েন যাত্রীটির উপর। ভিডিও (Viral Video) বন্ধ করার জন্য হুমকি দিতে থাকেন।