Madhyamik examinee: মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য বড় খবর, এবার সবাইকে টাকা দেবে পর্ষদ

নিজস্ব প্রতিবেদন : চলতি বছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় (Madhyamik Exam 2024) একের পর এক বদল দেখেছে পশ্চিমবঙ্গের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা। এবার পরীক্ষার সূচি এগিয়ে আনার পাশাপাশি পরীক্ষা শুরু হওয়ার সময়েও বদল আনা হয়েছিল। এছাড়াও পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র যাতে ফাঁস না হয় তার জন্য একাধিক পরিবর্তন আনা হয়েছিল পর্ষদের তরফ থেকে।

অন্যদিকে এসবের মধ্যেই এবার মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের টাকা দেওয়ার ঘোষণা করলো মধ্যশিক্ষা পর্ষদ (WBBSE)। এই টাকা প্রত্যেক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকেই দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে পর্ষদের তরফ থেকে। পর্ষদের তরফ থেকে এমন টাকা দেওয়ার ঘোষণা গত বছর সেপ্টেম্বর মাসেই করা হয়েছিল। এরই পরিপ্রেক্ষিতে এবার টাকা দেওয়ার প্রস্তুতি শুরু হলো।

গত বছর ২১ সেপ্টেম্বর পর্ষদের তরফ থেকে এই বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়েছিল, সফলভাবে পরীক্ষায় বসা সমস্ত নিয়মিত পরীক্ষার্থীদের অনুদান দেওয়া হবে। অনুদানের এই অর্থ ২০২৪ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে। এই বিষয়ে খুব তাড়াতাড়ি একটি পোর্টাল চালু করা হবে এবং সেই পোর্টালে অনুদান নেওয়ার জন্য আবেদন জানাতে হবে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের।

আরও পড়ুন 👉 Higher Secondary Exam 2024: উচ্চমাধ্যমিকের সেরা ভুল! উত্তরপত্রের বদলে প্রশ্নপত্র জমা দিয়ে বাড়ি ফিরল এই ছাত্র

পর্ষদ সূত্রে জানা গিয়েছে, খুব তাড়াতাড়ি পর্ষদের তরফ থেকে একটি পোর্টাল চালু করা হবে এবং সেই পোর্টাল চালু করার পর ৪৫ দিন পোর্টালটি চালু থাকবে। সেই ৪৫ দিনের মধ্যে স্কুল কর্তৃপক্ষ এবং পরীক্ষার্থীদের আবেদন জানাতে হবে। যারা আবেদন জানাবেন তারা অনুদান স্বরূপ সেই টাকা পাবেন। পর্ষদের তরফ থেকে পরীক্ষার্থীদের স্বস্তি দেওয়ার জন্য এই টাকা দেওয়ার ঘোষণা করা হয়েছে।

কত টাকা করে পাবেন পরীক্ষার্থীরা? পর্ষদের তরফ থেকে যে অনুদান দেওয়া হচ্ছে সেই অনুদান স্বরূপ এই বছরের প্রত্যেক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের ১০ টাকা করে দেওয়া হবে। তবে ১০ টাকা করে অনুদান দেওয়ার প্রসঙ্গ উঠতেই অনেকেই প্রশ্ন তুলছেন, এখনকার দিনে ১০ টাকা অনুদান নিয়ে কি হবে? যদিও এর পরিপ্রেক্ষিতে পর্ষদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এক এক জন পড়ুয়ার কাছে ১০ টাকা খুব নগণ্য হলেও সামগ্রিকভাবে সরকারের কোটি কোটি টাকা খরচ হবে। ওই দশ টাকা দিয়ে একজন পরীক্ষার্থী পেন, জলের বোতল বা অন্য কিছু কিনতে পারবে। পর্ষদের তরফ থেকে এমনটা দাবি করা হলেও ১০ টাকা অনুদান দেওয়া নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশের মধ্যে।