ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতে’, তিন রাজ্যে জারি হলো সতর্কতা

নিজস্ব প্রতিবেদন : বছরের প্রথম ঘূর্ণিঝড় প্রসঙ্গে আগেই মৌসম ভবনের তরফ থেকে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল। আর সেই পূর্বাভাস মতই আরব সাগর এবং লাক্ষাদ্বীপ এলাকায় তৈরি হতে দেখা দেখা যাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতে’। আগামী রবিবারের মধ্যে আরব সাগরে যে গভীর নিম্নচাপ ঘনীভূত হয়েছে তা ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। আর এর জেরে মৌসম ভবনের তরফ থেকে তিন রাজ্যে সর্তকতা জারি করা হলো।

যে তিন রাজ্যগুলির ক্ষেত্রে সর্তকতা জারি করা হয়েছে সেগুলি হল মহারাষ্ট্র, গুজরাত এবং কেরল। এই তিন রাজ্যে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই শুক্রবার থেকে লাক্ষাদ্বীপ এলাকার বেশ কিছু অংশে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি শুরু হয়েছে। পাশাপাশি কেরলের পাঁচ জেলায় লাল সর্তকতা জারি করা হয়েছে। কেরলে শনিবার থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের সর্তকতা রয়েছে। আর এই ঘূর্ণিঝড় ‘তাওকতে’ রবিবার অথবা সোমবার ভারতীয় ভূখণ্ডে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা তৈরি করছে।

মৌসম ভবনের তরফ থেকে অনুমান করা হচ্ছে এই ঘূর্ণিঝড়ের ভালো প্রভাব পড়তে পারে মুম্বই, গোয়া এবং গুজরাতে। আগামী মঙ্গলবার গুজরাতে এই ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়তে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। অনুমান করা হচ্ছে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রাজস্থানের দক্ষিণ পশ্চিম অংশে ভারী বৃষ্টির দেখা মিলতে পারে। পাশাপাশি স্থানবিশেষে ৪০ থেকে ৮০ কিলোমিটার গতিবেগে ঝড়ের সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

আরও পড়ুন :

অন্যদিকে এই ঘূর্ণিঝড় তৈরীর পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গের তাপমাত্রা বাড়বে বলে হাওয়া অফিসের তরফ থেকে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। আগামী দিন কয়েক স্থান বিশেষে রাজ্যের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রিতে পৌঁছাতে পারে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি সেভাবে কোন বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানাতে পারেনি হাওয়া অফিস।