কষ্টের রোজগার থেকে সোনার গলার হার উপহার, আবেগে ভাসলেন মা

নিজস্ব প্রতিবেদন : প্রতিটি যুবক-যুবতী নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে রোজগার করতে চান। ব্যবসা হোক অথবা চাকরি, রোজগারের প্রথম অর্থ দিয়ে তারা তাদের বাবা অথবা মায়ের হাতে কিছু তুলে দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। ঠিক সেই রকমই এক যুবক তার কষ্টের রোজগার থেকে তার মাকে উপহার স্বরূপ দিয়েছেন একটি সোনার গলার হার। ছেলের রোজগারের কষ্টের টাকায় সোনার গলার হার পেয়ে আবেগে ভাসতে দেখা গিয়েছে ওই মাকে।

অনির্বচনীয় সেই অনুভূতি এবং সেই মুহূর্তের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হওয়ার পর তা ভাইরাল হয়ে পড়ে। এই ভিডিও কেনইবা ভাইরাল হবে না! কারণ বড় হয়ে ছেলেমেয়ে নিজেদের রোজগারের টাকা থেকে যদি বাবা-মায়ের জন্য কোন উপহার নিয়ে আসেন সেই আবেগ অনুভূতি বলে বোঝানোর জায়গা রাখে না।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, ছোট্ট ঘরের মধ্যে কাজে ব্যস্ত রয়েছেন মা। তিনি সবাইকে খাবার দেওয়ার জন্য নিজের মনেই কাজ করে যাচ্ছেন। অন্যদিকে তার ছেলে তার মায়ের জন্য সোনার গলার হারটি কিনে নিয়ে এসে পিছন দিকে মায়ের গলায় পরিয়ে দিচ্ছেন। প্রথম দিকে ওই যুবকের মা বিষয়টি বুঝতে না পারলেও পড়ে দেখেন এমন কান্ড।

নিজেই বসে খাবার দেওয়ার কাজে ব্যস্ত থাকার ওই যুবকের মা যখন দেখেন তার ছেলে এমন কান্ড ঘটিয়েছেন সেই সময় তিনিও আবেগে ভেসে ওঠেন। মুগ্ধ দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকেন তার ছেলে এবং ওই সোনার হারের দিকে। এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হওয়ার পর প্রতিটি দর্শকের হৃদয় কেড়ে নিয়েছে।

যদিও এই ভিডিওটি কোন জায়গায় এবং ওই ছেলে ও মায়ের পরিচয় কি তা সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। তবে ৪০ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি যেমন সোশ্যাল মিডিয়ার দর্শকদের মন কেড়েছে ঠিক সেইরকমই যিনি তা আপলোড করেছেন তিনি একেবারে মানানসই ক্যাপশন দিয়ে লিখেছেন ‘মায়ের জন্য ছোট্ট উপহার’।